বৃহস্পতিবার ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭ ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

অক্লান্ত পথিক- প্রদীপ কুমার বর্মন

বসন্তের প্রথম পক্ষে ঘটেছিল তোমার আগমন,

প্রথম দিবসে মম নীড় থেকে ছিলাম খানিক দূরে ।

তুমি প্রহর গুনেছিলে আমি ফিরব কখন,

আমি দুরন্ত না ডানপিটে এটাও ভেবেছিলে,

আমি ফিরে আসিনি তখন ।

তোমার যখন এ পর্যন্ত ভাবনা,

আমার ভাবনা তখন সিমানা পেরিয়ে গেছে ।

নীড়ে ফিরে আসলাম যখন, ও চোখে চোখ পড়ল যখন,

আমার হৃদয় মাঝে বিজলী চমকালো তখন ।

আমি তোমাতে চাইলাম, নির্বাক, অটল, স্থির

অতঃপর হাত বাড়িয়ে দেওয়া ।

হৃদয়ে বাজে বীণা, দর্শক শূন্য,

মঞ্চে উঠলাম তৃতীয় দিবসে

তোমার হস্তে আমার হাত,

হয়ে গেল অনাবিল স্পর্শ

একসাথে আমার এবং ভালবাসার ।

আমি ভাবনার বাক্যে বলি, আকাশের চাঁদ হাতে পেয়েছি,

জীবনটা আজ পূর্ণ হল এতদিন কোথায় ছিল ।

অবশেষে শুনলাম তুমি আসলে পূর্ণশশী

বললে, আমি তোমার আলো,

তোমার হৃদয়ের মাঝে আমার জায়গা করে দিয়েছে,

বেধেঁছি নীড়, বুনেছি স্বপ্ন, আমিও কথা দিলাম ।

তোমার ভালবাসার ছোঁয়ায় আমি

সাগর পাড়ি দিয়েছি,

যা তোমাকে দেখার আগে

আমি সাগরের লোনা পানির

কাছে বার বার হেরে যাই ।

বন্ধু, আজ আমি বড় ক্লান্ত পথিক,

কথা আছে আরও অনেক কিন্তু শ্রান্ত,

ভাবিনী কখনও প্রকাশ না করলে,

কবিতা কেন- মনের মানুষও হারিয়ে যায় ।

জানিনা কখন মাথা থেকে সেই স্মৃতি মুছে যাবে,

যেটা আমার বেচেঁ থাকার মাঝে, সন্দিহান ।

আমি ভাবিনা, ভাবনাই আমাকে জেগে তোলে-

কিন্তু আমি তোমাকে চিরন্তন বিশ্বাস করি ।