বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০১৯ ৬ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান মুখোমুখি আজ

বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসরে আজ বুধবার মুখোমুখি হবে সাবেক ও বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়ার মহারণ দিয়ে রোমাঞ্চে ফেরার পালা এবার। বাংলাদেশ সময় বেলা সাড়ে ৩টায় শুরু হবে ম্যাচটি। বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে টানা জিতে যাওয়া অস্ট্রেলিয়া তৃতীয় ম্যাচে ভারতের কাছে হেরে যায়। অন্যদিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে বাজেভাবে হেরে টুর্নামেন্ট শুরু করা পাকিস্তান দ্বিতীয় ম্যাচে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ছন্দে ফেরে। পরে বৃষ্টির কারণে শ্রীলঙ্কা ম্যাচ ভেস্তে যাওয়ায় পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হয়। অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে জয়ের বিকল্প ভাবার উপায় নেই পাকিস্তানের।

হাইভোল্টেজ ম্যাচ জিতে অস্ট্রেলিয়াও ছন্দে ফিরতে মরিয়া। সেখানে বৃষ্টি-হতাশা কাটিয়ে পথে ফেরার চ্যালেঞ্জ পাকিস্তানের। অজিদের পর সামনের ম্যাচটাই আরও কঠিন পরীক্ষা। নিজেদের পরবর্তী ম্যাচে যে সরফরাজ-আমিরদের প্রতিপক্ষ ভারত। অস্ট্রেলিয়াকে হারাতে পারলে মানসিকভাবে এগিয়ে থেকেই ভারতের বিপক্ষে নামতে পারবে পাকিস্তান। দুই দলের মুখোমুখি সাক্ষাতে যোজন যোজন এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া। ১০৩ বারের সাক্ষাতে অস্ট্রেলিয়ার ৬৭ জয়ের বিপরীতে পাকিস্তানের জয় মাত্র ৩২টিতে। ৩টি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয় এবং একটি হয় টাই। বিশ্বকাপের পরিসংখ্যানও কথা বলছে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে। বিশ্বমঞ্চে ৯ বারের সাক্ষাতে অজিদের ৫ জয়ের বিপরীতে ১৯৯২ সালের চ্যাম্পিয়নদের জয় ৪টিতে। বিশ্বকাপে সর্বশেষ সাক্ষাতেও জয়ী দলটির নাম অস্ট্রেলিয়া। চার বছর আগে কোয়ার্টার ফাইনালে পাকিস্তানকে হারায় অজিরা। এদিকে ইংল্যান্ডের মাটিতে পাকিস্তান বরাবর সফল হলেও এখানেও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পিছিয়ে আছে। ইংল্যান্ডের মাঠে ৮ বারের সাক্ষাতে পাকিস্তানের ৩ জয়ের বিপরীতে অস্ট্রেলিয়া জিতেছে ৫টিতে। সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সও চোখ রাঙাচ্ছে পাকিস্তানকে। বিশ্বকাপের মাস আগেই আরব আমিরাতে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ০-৫ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হয় পাকিস্তান। আগামী শুক্রবার বিশ্বকাপের অন্যতম বিগ ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি হবে পাকিস্তান। সেই ম্যাচ পাকিস্তানের সেমিফাইনালের ভাগ্য গড়ে দেবে বলেই ধারণা বিশ্লেষকদের। অস্ট্রেলিয়াকে হারাতে পারলে বাড়তি অনুপ্রেরণা মিলবে। ভারতকে সতর্কবার্তাও দেয়া যাবে। অজিদের বিপক্ষে তাই আটঘাট বেঁধেই নামছেন সরফরাজরা।