মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০ ৩০শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আগামী ৫ বছরের মধ্যে দেশের প্রত্যেকটি গ্রাম বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হবে-হুইপ ইকবালুর রহিম

জিন্নাত হোসেন : জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বলেছেন, আগামী ৫ বছরের মধ্যে দিনাজপুর সদর উপজেলাসহ দেশের প্রত্যেকটি গ্রাম বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হবে। এ প্রসঙ্গে তিনি বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের আহবান জানিয়ে বলেন, শুধুমাত্র বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত করলেই চলবে না। এই বিদ্যুৎ ব্যবহার করে শিক্ষা, সংস্কৃতিসহ সার্বিক ক্ষেত্রে সমাজকে আলোকিত করতে হবে।

তিনি ২ নভেম্বর রোববার দিনাজপুর সদর উপজেলার দক্ষিণ কোতয়ালীর নূন সাহার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে নূনসাহার চক্রাবান, মহিশপাতান ও গানপাড়া ৩টি গ্রামের প্রায় ২ শতাধীক বাড়িতে পল্লী বিদ্যুৎ সংযোগের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

হুইপ ইকবালুর রহিম বলেন, বিগত বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার বিদ্যুতের উন্নয়নের কথা বলে খুটি খাম্বা নির্মানের নামে রাষ্ট্রের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় এসে দেশে অভাবনীয় বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধি করেছে। এ সরকার ক্ষমতায় আসার সময় দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদন ছিলো ৩ হাজার ৫’শ মেগাওয়াট। কিন্তু বর্তমানে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদন ১১ হাজার মেগাওয়াট ছাড়িয়ে গেছে।

তিনি বিদ্যুতের সঠিক ব্যবহার ও বিদ্যুৎ ব্যবহারে সতর্কতা অবলম্বনের আহবান জানান।

আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে দেশে বিভিন্ন উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বলেন, দেশে ১৬ লাখ মেট্রিক টন খাদ্য ঘাটতি নিয়ে আওয়ামীলীগ দেশ পরিচালনার দায়িত্ব নিয়েছে। কিন্তু বিগত ৬ বছরে কৃষকদের ভর্তুকী প্রদানসহ কৃষকদের বিভিন্ন সমস্যা নিরসন করে খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধি করে দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। বর্তমানে সারাদেশে খাদ্য গুদামে ১৮ লাখ মেট্রিক টন খাদ্য মজুদ রয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ইকবালুর রহিম বলেন, সমাজের অসহায় ও দুর্দশাগ্রস্থ মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে সরকার বদ্ধ পরিকর। আর এ লক্ষ্যেই দেশের সব মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করনে বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, মুক্তিযোদ্ধা ভাতাসহ ৭৪ প্রকার ভাতা প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়াও দিনাজপুর সদর উপজেলায় প্রতিটি ঈদে ৪০ হাজার মানুষকে ভাতা প্রদান করা হয়েছে।

প্রধান অতিথি ইকবালুর রহিম বলেণ, বিগত ৬ বছরে সদর উপজেলার প্রত্যেকটি মসজিদ, মন্দিরসহ বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন করা হয়েছে। আগামী ৫ বছরে সদর উপজেলার প্রত্যেকটি সড়ক পাকাকরন করা হবে বলে তিনি জানান।

দিনাজপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইমদাদ সকরকার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পল্লী বিদ্যুতের জিএম কাজী মোহাম্মদ আলী, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ফরিদুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুর রহমান, সদর উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ মাসুদুর রহমান, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ ঘোষ কাঞ্চন, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কিশোর কুমার রায়, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসমিন লুনা, শহরের ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ আক্তারুজ্জামান জামান, শহর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবাক শাহ্ রেজওয়ান-উর-রহমান পলাশ প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন দিনাজপুর সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক মোঃ আশরাফুল আলম।

 

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email