শনিবার ৬ জুন ২০২০ ২৩শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আটোয়ারীতে নিখোঁজের পর দিন স্কুল ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার। আটক ২

রীনা চৌধূরী, আটেয়ারী (পঞ্চগড়) থেকে ॥ পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে নিখোঁজের একদিন পর পুকুর থেকে এক স্কুল ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলার ছোটদাপ গ্রামের জনৈক অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য মোঃ আব্দুস সামাদ এর কন্যা আটোয়ারী সরকারি পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী সাদিয়া সামাদ লিছা (১৪) এর সাথে একই গ্রামের মোঃ ফারুক এর পুত্র আটোয়ারী মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্র মোঃ আকাশ (১৫) এর সাথে সম্প্রতি প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে। লিছার সাথে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রক্ষার স্বার্থে প্রেমিক আকাশ তার মায়ের মোবাইল ফোন চুরি করে গত সোমবার (১৭ সেপ্টেম্বর) প্রেমিকা লিছাকে ওই মোবাইল উপহার দেয়। গত বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় মেয়ের কাছে মোবাইল ফোন দেখতে পেরে এদিকে লিছার মা জলি বেগম আকাশের দেওয়া মোবাইল ফোন মেয়ের কাছে দেখতে পেয়ে তাকে শাসিয়ে আকাশের বাড়ি গিয়ে তার অভিভাবককে অভিযোগ জানায়। লিছার মা বাড়ি ফিরে দেখে লিছা বাড়িতে নেই। গভীর রাত পর্যন্ত লিছাকে খুজে না পেয়ে পরিবারের লোকজন আকাশের বাবা-মায়ের কাছে যায় এবং লিছাকে সন্ধ্যা হতে পাওয়া যাচ্ছেনা বলে জানায়।  

তাৎক্ষনিকভাবে লিছার পরিবারের সদস্যরা প্রতিবেশী সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান গোলাপের নিকট আসেন এবং ঘটনা জানান। তাৎক্ষনিকভাবে তিনি আকাশ সহ তার বাবা-মাকে ডেকে নেন এবং জিজ্ঞাসাবাদ করেন। আকাশের দেয়া তথ্য অনুযায়ী তিনি আবারো ছোটদাপ গ্রামের মজিবর রহমানের পুত্র খোশবাজার মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণীর ছাত্র মেহেদি হাসান মুন্না (১৪) ও মোঃ আক্তারুজ্জামান মিয়া (মাষ্টার) এর পুত্র ৮ম শ্রেণীর ছাত্র সৈয়দ রহমান সাদ (১৫)কে তাদের অভিভাবকসহ ডেকে নেন এবং তোড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান হাসান হাবিব আল আজাদের সাথে তাদেরকে দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদ করেন। জিজ্ঞাসাবাদের বৈঠক অব্যাহত থাকা অবস্থায় পরদিন সকালে বাড়ির পার্শ্বের পুকুরে লিছার মরদেহ ভেসে উঠা দেখে চিৎকার করে লিছার চাচা। পুকুরে লিছার মরদেহ পাওয়ার খবর জানতে পেরে সৈয়দ রহমান সাদ বৈঠক থেকে দ্রুত পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে আটোয়ারী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পুকুর হতে মরদেহ উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য পঞ্চগড় মর্গে প্রেরণ করেন। আটোয়ারী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আঃ রাজ্জাক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তাৎক্ষনিকভাবে আকাশ ও মেহেদী হাসান মুন্নাকে আটক করা হয়। এব্যাপারে লিছার বাবা আঃ সামাদ বাদী হয়ে সংশ্লিষ্ট ওই ৩ (তিন) জনের নামে আটোয়ারী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

পঞ্চগড় জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আলমগীর, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ তৌহিদুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ মাহমুদ হাসান, অফিসার ইনচার্জ মোঃ আঃ রাজ্জাক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email