মঙ্গলবার ২ জুন ২০২০ ১৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আবরার হত্যার চার্জশিট নভেম্বরে

বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় করা মামলার তদন্ত শেষ পর্যায়ে। তবে সব কিছু গুছিয়ে আগামী নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার আব্দুল বাতেন। 

বৃহস্পতিবার ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

আব্দুল বাতেন বলেন, বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদকে নৃশংসভাবে হত্যার ঘটনায় আমরা নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে অভিযোগপত্র দেয়ার কথা বলেছিলাম। এ লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের তদন্ত কাজ প্রায় সম্পন্ন, নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয়া হবে।

অতিরিক্ত কমিশনার বলেন, মোটিভ যাই থাকুক, কাউকে হত্যা করার অধিকার কারো নেই। আমরা এখন পর্যন্ত যা পেয়েছি, শিবির সন্দেহে আবরার ফাহাদকে মারধর করা হয়েছিল। 

জড়িতদের বিষয়ে জানতে চাইলে আব্দুল বাতেন বলেন, মামলার এজাহারভুক্ত ১৯ আসামির মধ্যে এ পর্যন্ত ১৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এজাহার বহির্ভূত আরো পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই ২১ জনের মধ্যে সাতজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলত জবানবন্দি দিয়েছেন। 

গ্রেফতার ২১ জনের বিরুদ্ধেই অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে জানিয়ে আব্দুল বাতেন বলেন, আবরার ফাহাদের হত্যাকাণ্ডস্থল বুয়েটের শেরে বাংলা হলের ক্যান্টিন বয়, শিক্ষক, গার্ডসহ কয়েকজন ১৬১ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। মামলার বস্তুগত সাক্ষ্য ওবং প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে। মামলার তদন্তে যে সমস্ত প্রক্রিয়া অবলম্বন করা দরকার, তা সম্পন্ন করা হয়েছে। 

গ্রেফতার ২১ জনের বিরুদ্ধেই প্রাথমিকভাবে অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। তাদের নাম উল্লেখ করেই আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

গত ৬ অক্টোবর বুয়েটের শেরে বাংলা হলের একটি কক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়টির ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা তাকে শিবির সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা করে। এরপর ঘটনাটি ভিন্নখাতে নেয়ারও চেষ্টা চালায়। কিন্তু অন্য ছাত্ররা দেখে ফেলায় তা সম্ভব হয়নি। ছাত্রলীগের হাতে নিহত আবরার বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি শেরে বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন। এ ঘটনার পর আবরারের বাবা বাদী হয়ে চকবাজার থানায় বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেলসহ ১৯ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email