রবিবার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮ ২রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

আশা দিনাজপুর (বীরগঞ্জ) জেলার অর্ধ বার্ষিক বিএম সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

ইউসুফ আলী, দিনাজপুর ॥ আশা দিনাজপুর (বীরগঞ্জ) জেলার ২৮টি ব্র্যাঞ্চ ম্যানেজারদের নিয়ে অর্ধ বার্ষিক বিএম সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

১৯ সেপ্টেম্বর বুধবার বীরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে আশা দিনাজপুর (বীরগঞ্জ) ব্যাঞ্চের আয়োজনে ২৮টি ব্র্যাঞ্চ ম্যানেজারদের নিয়ে অর্ধ বার্ষিক বিএম সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আশা দিনাজপুর (বীরগঞ্জ) জেলার সিনিয়র সিষ্ট্রিক ম্যানেজার মোঃ একরামুল হক এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আশা-ঢাকা কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের এসিসট্যান্ট ডিরেক্টর সুমন কর্মকার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর বিভাগের ডিভিশনাল ম্যানেজার মোঃ হাফিজুর রহমান আকন্দ, দিনাজপুর বিভাগের এডিশনাল ডিভিশন ম্যানেজার মোঃ ওমর ফারুক। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আশা দিনাজপুর (বীরগঞ্জ) জেলার এএসই মোবারক হোসেন, ফিল্ড অডিটোর ও সমন্বিত শিক্ষা ও স্বাস্থ্য অফিসারসহ সকল আঞ্চলিক কর্মকর্তাবৃন্দ। সভায় জানুয়ারী-জুন-২০১৮ ও জুন-আগষ্ট-২০১৮ মাসের সার্বিখ কার্যক্রম পরিচালোনা করে আগামী ২০১৯ সালেরজন্য ঋণ বিতরণ লক্ষ্যমাত্রাসহ অন্যান্য বিষয়ে দিক নির্দেশনা মূলক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

প্রধান অতিথি আশা-ঢাকা কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের এসিসট্যান্ট ডিরেক্টর সুমন কর্মকার বলেন, উল্লেখ্য যে আশা ১৯৯৫ সাল থেকে দিনাজপুর (বীরগঞ্জ) জেলার সঞ্চয় ও ঋণদান কর্মসূচী পরিচালনা ছাড়াও সদ্যদের জন্য অবসর ভাতা সদস্য মৃত্যু জনিত দাফন-কাফন/সৎকার করার জন্য অর্থ সহায়তা, চিকিৎসা অনুদান, শিক্ষা, আশা বিশ্ববিদ্যালয়, আশা-ম্যাটস, স্বাস্থ্য, ফিজিওথেরাপী, স্যানিটেশন, স্বাস্থ্য সচেতনামূলক কর্মসূচীসহ সামাজিক সকল কার্যক্রম সফলভাবে পরিচালনা করে আসছে। বর্তমানে অত্র জেলায় মোট ২৮টি ব্রাঞ্চ কার্যালয়ের মাধ্যমে প্রায় ৭৫ হাজার জন সদস্যকে ৩৫০ কোটি টাকা ঋণ প্রদান করে দরিদ্র পরিবারের সদস্যসহ ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন ধরনের ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা যেমন, কুঠিরশিল্প, মৎস্য চাষ, সবজি চাষ, মৌসুমী ফসল, গোবাদী পশুপালন ইত্যাদি কাজে নিয়োজিতদের স্বাবলম্বি করতে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সরাসরি সহায়ক ভুমিকা পালনে করে আসছে। পাশাপাশি জেলার সকল ব্র্যাঞ্চ কার্যালয়ের মাধ্যমে সাপ্তাহিক সভা করে স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক বিভিন্ন ইস্যুভিত্তিক প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে প্রতি মাসে আলোচনার মাধ্যমে সদস্যদের প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরিচর্যা সম্পর্কে সচেতন করা হচ্ছে এবং জেলার এ পর্যন্ত গরীব ও হতদরিদ্র সদস্যদের চিকিৎসা সহায়তা বাবদ মোট ২২০ জনকে ৫ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করা হয়েছে। আগামীতে এ কার্যক্রম ধারবাহিকভাবে অব্যাহত থাকবে।