বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর ২০১৯ ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

এসএবিডির কাংক্ষিত কাউন্সিলের প্রত্যাশায়

আরেকটি বছর এসএবিডি অতিক্রম করলো এক গুচ্ছ টগবগে তরুণের হাত ধরে, সময় ঘনিয়ে এলো আরেকগুচ্ছ গতিশীল নেতৃত্বের কাছে সংগঠনের নিবেদত হওয়ার। কাউন্সিল যেন থিয়েটারের নাট্যমঞ্চ, এক অভিনেতার দর্শকের হৃদয় জয় করতে না করতেই আরেক আভিনেতার আগমন ঘটে । বিদায়ী নেতা স্মৃতি একে যায় তার প্রতিটি কার্যক্রমের মাধ্যমে, আগত নেতা পথের যাত্রা শুরু করে সদ্য বিদায়ীর পথের নিশানা ধরে।

গতবছর নভেম্বরের শুরুর দিকে সংগঠনটির প্রথম কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়েন্স ক্যাফেটেরিয়ায় খুব সাদামাটাভাবে। এই সায়েন্স ক্যাফেটেরিয়ায় ২০০৯ সালে ইফতার মাহফিলের মাধ্যমে সংগঠনটির সুচনা হয়ছিলো, এসএবিডির ইতিহাসের পাতায় পাতায় লিখিত আছে ঢাবির এই ক্যাফেটেরিয়া। বিগত কাউন্সিলে ঢাকায় অবস্থানরত বীরগঞ্জ-সচেতন অনেক বড় ভাই উপস্থিত ছিলেন, ঢাকায় না থাকলেও বীরগঞ্জ নিয়ে চন্তা-ভাবনা করা আমার মত একজন নগন্য ব্যক্তিও জলঢাকা থেকে উপস্থিত ছিলো ওই কাউন্সিলে।

কাউন্সিলে যারা প্রত্যাশা অনুযায়ী পদ পায় তারা উচ্ছ্বসিত হয়, কিছু প্রাণ নীরবে কাদে প্রত্যাশা পূরণের বিড়ম্বনায়, তবে এলাকাভিত্তিক সংগঠনের কাউন্সিল নিয়ে হট্টগোল, মারামারি, বিক্ষোভ বা আন্দোলনের  খুব একটা সম্ভাবনা থাকে না। তাই, এই রকম কাউন্সিলে ভাল খানা-পিনা, গান-বাজনার আয়োজন থাকলে ভাঙ্গা মনগুলোও চাঙ্গা হয়ে যায়।

সংবিধানের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী অক্টোবরের তৃতীয় সপ্তাহে নতুন কমিটি গঠনের কথা থাকলেও হয়তো বিভিন্ন কারণে তা হয়ে ওঠে না। এবারের কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে ইতোমধ্যে । সাধারণ সম্পাদকের কমিটি গঠন বিষয়ক সভার নোটিশ দেখা গেছে।

এসএবিডি বীরগঞ্জের আপামর মানুষদের সাথে সংযুক্ত হওয়ার একটি সেতুবন্ধন। বিভিন্ন কার্যক্রমের মাধ্যমে স্বদেশী দৃষ্টিভঙ্গি জাগিয়ে তোলার একটি নিটোল প্রচেষ্টা থাকে সংগঠনের নেতাদের। বাঙ্গালির ঘরে জন্ম নিলেই বাঙালি হওয়া যায় না, তেমনি বীরগঞ্জের মাটিতে জন্ম নিলেই বীরগঞ্জের মাটি-মানুষের প্রতি দিওয়ানা হওয়া যায় না,  প্রয়োজন দায়িত্ববোধের  এবং কর্তব্যের, শুধু চিন্তা-ভাবনা মাথায় নিয়ে বসে থাকলে আপনারে কেউ মানব সেবী বলে না, কমপক্ষে তা প্রকাশ করতে হয়।

লেখক-মাহমুদুল হাসান

উপজেলা মৎস্য অফিসার

জলঢাকা, নীলফামারী।