সোমবার ২৩ জুলাই ২০১৮ ৮ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কাহারোল উপজেলায় শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ ও যোগাযোগে ব্যাপক উন্নয়ন

সুকুমার রায়,কাহারোল (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ঃ বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে কাহারোল উপজেলা উন্নয়ন মেলা সমাপ্ত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ও দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল এর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে উন্নয়নের মডেল হিসাবে রুপ নিয়েছে কাহারোল উপজেলা। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ, রাস্তাঘাট ও ক্রীড়ায় বিগত ৯ বছরে কাহারোল উপজেলায় ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। এর মধ্যে কাহারোল উপজেলায় ২০০৯ হতে ২০১৬ ইং সময়ে কাহারোল উপজেলায় মোট ২৫.৪৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ৮২.৭৫২ কিঃ মিঃ পল্লী সড়ক নির্মাণ করা হয়েছে। বর্তমানে ১৫.৫০ কিঃ মিঃ সড়কের কাজ চলমান রয়েছে। ইহা ছাড়া আগামী ২ বছরে আরো ৫০ কিঃ মিঃ সড়ক নির্মাণ করা হবে। ২০০৯-২০১৭ সময়ে কাহারোল উপজেলায় প্রায় ৯০ কিঃ মিঃ পল্লী সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়েছে। বর্তমানে ১৫ কিঃ মিঃ সড়ক রক্ষণাবেক্ষণের কাজ চলমান। গ্রামীণ অর্থনীতির গতিশীল সঞ্চালনে হাট-বাজার ও ঘাট নির্মাণেরও প্রয়োজন। তাই ২০০৯-২০১৭ সময়ে কাহারোল উপজেলায় উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স নির্মাণ, ৩ টি ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ও ৩ টি হাট-বাজার নির্মাণ করা হয়েছে। এতে প্রায় ৯.৫০ কোটি টাকা ব্যয় করা হয়েছে। বর্তমানে ৩টি কাজ চলমান আছে। প্রাথমিক শিক্ষায় শতভাগ শিশুর উপস্থিতি নিশ্চিত এবং আনন্দময় শিক্ষা শৈশবের জন্য সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলো নির্মাণ ও পুনঃ নির্মাণ করছে। বিদ্যালয়বিহীন গ্রামেও নতুন প্রাথমিক বিদ্যালয় নির্মাণ করা হয়েছে। কাহারোল উপজেলায় ২০০৯-২০১৭ সময়কালে ১৪ টি নতুন প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন, ৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কক্ষ সম্প্রসারণ এবং উপজেলা রিসোর্স সেন্টার নির্মাণ করা হয়েছে। এতে মোট ব্যয় করা হয়েছে ৫ কোটি ৩৯ লক্ষ ৩৯ হাজার টাকা। কাহারোল উপজেলায় ১.৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে ১টি শিল্পকলা একাডেমি কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হয়েছে। গুচ্ছ গ্রামের অধিকার, শেখ হাসিনার উপহার এই প্রতিপাদ্য বিষয়টিকে সামনে রেখে অত্র উপজেলায় ২টি আবাসন, ৪টি আশ্রায়ণ, ৪টি আদর্শ গ্রাম, ৭টি গুচ্ছ গ্রাম সর্বমোট ১৭টি প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়েছে। ১৭ টি প্রকল্পের মাধ্যমে ৮১০ টি ভূমিহীন পরিবারকে পুর্নবাসন করা হয়েছে। ৪টি প্রকল্পের পুর্নবাসনের কার্যক্রম চলমান এবং ৪টি প্রকল্পের প্রস্তাব প্রেরণ করা হয়েছে। কাহারোল উপজেলায় ১টি মুক্তিযোদ্ধার বাসগৃহ নির্মাণ এবং  ১ কোটি ৫৫ লক্ষ ৯৭ হাজার টাকা ব্যয়ে কাহারোলে ১টি মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণাধীন। উপজেলায় এপর্যন্ত ৩৬ হাজার পরিবারের মধ্যে ২২ হাজার পরিবারে বিদ্যুৎ সংযোগ হয়েছে এবং বিদ্যুৎ সংযোগ প্রক্রিয়া চলমান এবং উপজেলার মসজিদ, মন্দির, গীর্জা ও বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। ইহা ছাড়া বিভিন্ন উন্নয়নের কাজ অব্যাহত রয়েছে। গত ১৩ জানুয়ারী সন্ধ্যায় কাহারোল উপজেলার উন্নয়ন মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, শেখ হাসিনা সরকার উন্নয়ন করছেন বলেই সারাদেশে একযোগে উন্নয়ন মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। অতীতে কোন সরকার উন্নয়ন না করার কারণে উন্নয়ন মেলা করার সাহস করতে পারে নাই। তিনি আরোও বলেন, এই উন্নয়নের প্রধান স্বাক্ষী কাহারোল উপজেলার কান্তজীউ বাজার হতে কান্তনগর ঢেপা নদীর উপর ব্রীজ নির্মাণ। এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে, আসুন আগামী সংসদ নির্বাচনে নৌকায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনার হাত কে শক্তিশালী করে গড়ে তুলুন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাসিম আহমেদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশীদ চৌধুরী, অফিসার ইনচার্জ মোঃ আইয়ুব আলী প্রমুখ। আলোচনা শেষে মেলায় ১ম স্থান অধিকারী স্টল উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল মান্নাফ এর হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রধান অতিথি। ২য় পুরস্কার মৎস্য অফিসার মোঃ আবু জাফর ফাইম ও ৩য় পুরস্কার একটি বাড়ি একটি খামারের এলাকা ব্যবস্থাপক সবুজ রায়ের হাতে তুলেন দেন।