সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কাহারোল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তার প্রচেষ্টায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উন্নয়ন ও চিকিৎসা সেবার মান বৃদ্ধি।

কাহারোল (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ কাহারোল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবারপরিকল্পনাকর্মকর্তাডাঃ মোহাম্মদ শফিউল আজম অত্র উপজেলায়  ডাক্তার হিসেবে যোগদানের পর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-এর চিকিৎসা নেওয়ার জন্য আসা রোগীদের সেবার মান ফিরিয়ে পেয়েছে। দিনাজপুরের ১৩টি উপজেলার মধ্যে  অবহেলিত উপজেলা ছিল কাহারোল উপজেলা। বর্তমানে আর অবহেলিত নয় এখন উন্নত উপজেলা হিসাবে দিনদিন রূপান্তরিত হচ্ছে। এই উপজেলার সাধারন রোগীরা আগে এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তেমন কোন সেবা না পেয়ে অনেককেই বাড়ি ফিরে যেতে হয়েছে। এ ধরনের অভিযোগ অনেক রোগীদের কাছ থেকে শোনা যেত। এই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ও ছিল অবহেলিত। এরই মাঝখানে গত ২০১৮ সালের জুলাই মাসে টাঙ্গাইল জেলা থেকে বদলী হয়ে কাহারোল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-এর প্রধান হিসেবে যোগদান করেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ  মোহাম্মদ শফিউল আজম। ঐ সময় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ ডাক্তার ও কর্মচারীদের থাকার বাসভবন গুলো ছিল জরাজীর্ণ ও বসবাস অনুপোযোগী। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ৩১ শয্যাবিশিষ্ট হওয়ায় দূর-দূরান্তের ডাক্তাররা এখানে যোগদান করার পর থেকেই তদবির করে অন্যত্র বদলী নিয়ে চলে যেতেন। এর ফলে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আউটডোর রোগী ও ভর্তি হওয়া রোগীদের পড়তে হত অনেক ভোগান্তিতে। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর এ্যাম্বুলেন্সটি ও পরে ছিল বিকল অবস্থায়। কিন্তু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃকর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মদ শফিউল আজম যোগদান করার পর থেকেই তিনি সরকারের উচ্চ মহলের সাথে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বিষয়ে যোগাযোগঅব্যাহত রাখায় বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-এ একটি নতুন এ্যাম্বুলেন্স পেয়েছে, ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যাবিশিষ্ট উন্নতিকরণ (নতুন ভবন নির্মাণ), বসবাস অনুপোযোগী বাসভবন সংস্কার, ডাক্তারদের আবাসিক ভবন নির্মাণ, গর্ভবতীদের নারীদের নরমাল ডেলিভারিকরণ,  বর্তমানে নতুন ৭ জন ডাক্তারের যোগদান ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-এর মাঠ, সার্বক্ষণিক স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখা, ভেষজ বাগান সহ বিভিন্ন ধরনের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করেছেন তিনি। এই কর্মকর্তা প্রশাসনিক দাপ্তরিক কাজছাড়া ও প্রতিনিয়ত রোগী দেখছেন ও রোগীদের খোঁজখবর নিয়ে নিরলস ভাবে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। এর ফলে  ব্যস্ত সময় পার করছেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান কর্মকর্তা। ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০ সকাল ১১ টারদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য  কমপ্লেক্সে সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে ডাঃ মোহাম্মদ সফিউল আজমের সাফল্যের বাস্তবচিত্র। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মদ শফিউল আজম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-এর এ সব উন্নয়ন সহ সমস্যাগুলো যতটুকু সম্ভব হয়েছে তা নিরশন করার চেষ্টা করেছি এবং আমাদের এমপি মহোদয় মনোরঞ্জনশীল গোপাল ও স্বাস্থ্য বিভাগের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ এসব বিষয়ে আমাকে সার্বক্ষণিক সার্বিক সহযোগিতা করায় এসব কাজ বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়েছে বলে তিনি মনে করেন। তাই উপজেলার সচেতন মহল ও উপজেলাবাসী মনে করছেন ডাক্তার মোহাম্মদ শফিউল আজমের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে আমরা পেয়েছি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উন্নয়ন ও ভাল চিকিৎসা সেবার মান।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email