শুক্রবার ২০ জুলাই ২০১৮ ৫ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কোয়ার্টার ফাইনালে আজ ফ্রান্সের মুখোমুখি বেলজিয়াম

দেখতে দেখতে শিরোপা লড়াইয়ের কাছে চলে এসেছে বিশ্বকাপ। সেই লড়াইয়ে সবার আগে যেতে প্রথম সেমিফাইনালে বেলজিয়ামের মুখোমুখি হবে ফ্রান্স। ম্যাচটি শুরু হবে আজ মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টায়।

এবারের বিশ্বকাপে শুরু থেকেই দুর্দান্ত পারফরমেন্স করে যাচ্ছে পল পগবা, ওসুমানু ডেম্বেলে, এনগালো কান্তে, কিলিয়ান এমবাপ্পের মতো তরুণ তারকাদের নিয়ে গড়া ফ্রান্স। তাদের দলে রয়েছে আতোয়ান গ্রিজম্যান, অলিভার জিরুড, ব্লেইসি মাতুইদি ও স্যামুয়েল উমতিতির মতো অভিজ্ঞ তারকারাও।

এই দলটি বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডে ছিল অপরাজিত। প্রথম দুই ম্যাচে জয়ের পর তারা শেষ ম্যাচটি করে ড্র। শেষ ষোলোতে আর্জেন্টিনার মতো পরাশক্তিকে হারিয়ে দেয় ৪-৩ গোলে। কোয়ার্টার ফাইনালে তারা ২-০ গোলে হারায় উড়তে থাকা উরুগুয়েকে। এখন এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে প্রবল দাবিদার তারা।

অন্যদিকে, এডেন হ্যাজার্ড, রোমেরু লুকাকু, মওরানি ফেরানি, ভিনসেন্ট কোম্পানির মতো বিশ্বমানের তারকাদের সাথে বেলজিয়াম দলে আছে নাসের চাদলি, জন ভেত্রোগান ও কেভিন ডি ব্রইনের মতো তরুণ তারকা। এবারের বিশ্বকাপে এখনো সেরা দল তারাই। প্রথম রাউন্ডে তিউনিশিয়া ও পানামাকে উড়িয়ে দেয় তারা। পরের ম্যাচে হারায় ইংল্যান্ডকেও।  শেষ ষোলোতে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়েও জাপানকে হারিয়ে দেয় তারা। আর কোয়ার্টার ফাইনালে তো হট ফেবারিট ব্রাজিলকেই হারিয়ে দেয়।

এবারের বিশ্বকাপের শুরুতে তাদের ডার্ক হর্স বলা হলেও এখন শিরোপার প্রবল দাবিদার তারা। তারা যেভাবে খেলছে তাতে করে আজ ফ্রান্সকে হারাতে খুব একটা ঝক্কি পোহাতে হবে না।

নাসের চাদলি তো গতকাল সংবাদ সম্মেলনে বলেই ফেলেছেন তারা বিশ্বকাপ জেতার জন্যই খেলছেন। কোনো দলকেই তারা ভয় পান না। যদিও এই তারকা এমবাপ্পেকে নিয়ে একটু দুশ্চিন্তায় আছেন। তাকে কিভাবে থামানো যায় সেটাই ভাবছেন।

বেলজিয়াম কোচ মার্টিনেজ অবশ্য সতর্ক ফ্রান্সের ব্যাপারে। তিনি বলেন, ফ্রান্স দলটা অসাধারণ। ওদের বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় আছে যারা মুহূর্তেই ম্যাচের গতি পাল্টে দিতে পারে। আমরা সতর্ক থেকেই আজ মাঠে নামবো।

ফ্রান্সের কোচ দিদিয়ের দেশমের ভয়টা অবশ্য লুকাকু আর হ্যাজার্ডকে নিয়ে। তিনি বলেন, লুকাকু আর হ্যাজার্ড যেভাবে খেলছে তাতে করে তাদের থামানো কষ্টকর। আমি ব্রাজিলের ম্যাচটি দেখেছি। সেখানে তারা দুইজন দারুণ ছিল। তবে আমাদের দলেও বিশ্বমানের খেলোয়াড় আছে। ওদের আটকাতে সব পরিকল্পনা করে ফেলা হয়েছে।

৭৩ বার এর আগে দেখা হয়েছে দুই দলের। বেলজিয়ানদের ৩০টি, ফরাসিদের জয় ২৪টি। বাকি ১৯টি ম্যাচ হয়েছে ড্র।

ফুটবল বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আজকের ম্যাচে যারা জিতবে তাদের হাতেই উঠবে এবারের বিশ্বকাপ। এই ম্যাচকে বলা হচ্ছে ফাইনালের আগে ফাইনাল। এখন দেখা যাক জয়টা কার হয়।