রবিবার ৯ অগাস্ট ২০২০ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

“খানসামায় একদিনে করোনা জয় করে বাড়ি ফিরলেন একই পরিবারের এগারো জন”

এস.এম.রকি,খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ চারিদিকে যখন প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারনে মৃত্যুর খবর তখন আশার বানী শুনালো দিনাজপুরের খানসামা উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। বৃহস্পতিবার আইসোলেশন কেন্দ্র থেকে সুস্থ হয় একদিনে বাড়ি ফিরেছেন ১১জন। খানসামা উপজেলায় মোট করোনা আক্রান্ত ৪১জন,সুস্থ রোগী ২২জন ও মৃত্যু ১ জন। 

বৃহস্পতিবার (৯জুলাই) দুপরে পাকেরহাটস্থ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে তাদেরকে সুস্থ হওয়ার সার্টিফিকেট ও পুষ্টিকর খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেন মানবিক ইউএনও আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম।

এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডা.শামসুদ্দোহা মুকুল,মেডিকেল অফিসার ডা.ফারুক,ডা.তন্নী, ডা.আইরিন,পিআইও মাজহারুল ইসলাম,ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা শাহ ও সাজেদুল হক সাজু,সাংবাদিকবৃন্দ ও স্বাস্থ্য কর্মীগণ সহ আরো অনেকে।

উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে জানা গেছে,গত ১জুন উপজেলার পাকেরহাট গ্রামের আমান (৩০) এবং ৬জুন আব্দুল্লাহ(৬৮), মমতাজ(৫৫),খালেদা(২৪) ও ভান্ডরদহ গ্রামের খালেক (৫০),মঞ্জুয়ারা (৪৫),রেজাউল (২৮),সুরাইয়া (২০),জহির (৭০) এবং ৭জুন ভান্ডারদহ গ্রামের খয়রাত আলী (৬০) ও আমেনা (৫০) করোনা শনাক্ত হন। পরে তাদের বাড়ি লগডাউন করে আইসোলেশন রেখে চিকিৎসা নেওয়ার পর তাদের ফলোআপ পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ আসে।

ইউএনও এবং স্বাস্থ্য বিভাগের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে ছাড়পত্র পাওয়া ৩০বছর বয়সী প্রকৌশলী আমান বলেন,আল্লাহ’র রহমতে আমি এখন পুরোপুরি সুস্থ। করোনায় আক্রান্ত শুনে অনেক ভয় পেয়েছিলাম। তবে সকলের অনুপ্রেরণা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ফলে দ্রুত সুস্থ হই ’

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডা.শামসুদ্দোহা মুকুল বলেন,‘করোনার কোনো নির্দিষ্ট চিকিৎসা না থাকলেও লক্ষণ অনুযায়ী আমরা চিকিৎসা দিয়েছি। আর করোনা আক্রান্তদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এবং রোগীর মনোবল বাড়ানো,পুষ্টিকর খাবার খাওয়া, যাতে তার শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।’

ইউএনও আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম বলেন,করোনাকে ভয় নয় জয় করতে হবে ও নিয়ম মেনে চলতে হবে। তাহলেই করোনা প্রতিরোধ করা সম্ভব। তিনি আরো জানান,আমরা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সকল স্তরের জনসমাগম নিরুৎসাহিত করতেছি এবং স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে সচেতনতা কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছি।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email