সোমবার ১৩ জুলাই ২০২০ ২৯শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

খানসামায় এবছর কাঁঠালের বাম্পার ফলন, ভালো দামে চাষীরাও খুশি

এস.এম.রকি,খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ জাতীয় ফল কাঁঠাল। ফলের রাজা বলে সবার কাছে সমাদৃত। কাঁঠাল শুধুমাত্র একটি মৌসুমী ফলই নয় সহায়ক খাদ্য ও অর্থকরী ফসল হিসেবে স্বকীয় গুণাগুনের কারণেই নিজের জায়গা করে নিয়েছে। এবছর দিনাজপুরের খানসামায় উপজেলার ৫৭টি গ্রামের ছোট-বড় বাগান,বসতবাড়ির আনাচে-কানাচে ও রাস্তাঘাটে বিভিন্ন বয়সী এসব গাছে কাঠাঁলের বাম্পার ফলন হয়েছে আর ভালো দাম পাওয়ায় চাষীরাও বেশ খুশি।

জ্যৈষ্ঠ মাস শেষে আষাঢ় শুরু। পাকা কাঁঠালের ঘ্রাণ বাতাসে। হাটবাজারে পুরোদমে বিক্রি হচ্ছে জাতীয় এই ফলটি।

উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়,খানসামায় প্রায় ৪৫হেক্টর জমিতে কাঁঠাল গাছ রয়েছে। যার মধ্যে বাগান আকারে ৫হেক্টর ও বসতবাড়ি সহ অন্যান্য স্থানে ৪০হেক্টর জমিতে প্রায় সাড়ে ছয় হাজার কাঁঠাল গাছ রয়েছে। এর মধ্যে গালা,খাজা, হাজারী ও বারমাসী জাতের কাঁঠাল রয়েছে। এছাড়াও বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের উদ্ভাবিত বারি কাঁঠাল-১ এবং বারি কাঁঠাল-২ নামে দুটি উচ্চ ফলনশীল জাতের কাঁঠাল গাছ রয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডা.শামসুদ্দোহা মুকুল বলেন,কাঁঠাল পুষ্টি ও ভিটামিন সমৃদ্ধ একটি ফল। কাঠাঁল ফল নার্ভাসনেস দূর করে এবং হাঁড় গঠনে ও শক্তিশালীকরণে বিশেষ ভূমিকা রাখে।

উপজেলা কৃষি অফিসার মো:আফজাল হোসেন জানান,আবহাওয়া অনূকূলে থাকায় এবছর কাঁঠালের ফলন ভালো হয়েছে। এই দেশী ফল অনেক পুষ্টিসমৃদ্ধ। তিনি আরো জানান, কৃষকরা নিজের ও পরিবারের পুষ্টি চাহিদা পূরণ করে বাজারে কাঁঠাল বিক্রি করে আর্থিকভাবেও লাভবান হচ্ছে।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email