বৃহস্পতিবার ২৩ জানুয়ারী ২০২০ ১০ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

খানসামায় বোরো ধানের বীজতলা নষ্ট হওয়ার উপক্রম,দুশ্চিন্তায় কৃষকরা

এস.এম.রকি,খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ বিকেল গড়াতেই তীব্র শীত ও ঘন কুয়াশা অব্যাহত থাকায় উত্তরের কৃষি প্রধান দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় বোরো ধানের বীজতলা নষ্ট হওয়ার উপক্রম হওয়ায় দুশ্চিন্তায় রয়েছেন উপজেলায় বোরো চাষীরা।

উপজেলার বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা যায়, বীজতলাগুলোতে চারা শুকিয়ে লালচে রং ধারণ করে নষ্ট হচ্ছে অধিকাংশ বীজতলা।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, আসন্ন বোরো আবাদের জন্য উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের ৪ হাজার ২৩৫ হেক্টর জমি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নে ১৮৫ হেক্টর জমিতে ধানের বীজতলা তৈরি ও বপন করা হয়েছে।

শৈত্যপ্রবাহের কারনে অধিকাংশ স্থানে বীজতলা নষ্ট হওয়ায় কৃষকরা দুশ্চিন্তায় ভুগছেন তবে কৃষি বিভাগের পরামর্শে নিরাপদ ধানের চারা তৈরির জন্য আধুনিক চাষ পদ্ধতির বার্তা নিয়ে মাঠে মাঠে ঘুরছেন কৃষি কর্মকর্তারা।

ছাতিয়ানগড় গ্রামের কৃষক ময়নুল ইসলাম জানান, বীজতলা নষ্ট হওয়ায় ধানের চারা সংকট হতে পারে এতে খরচের পরিমাণও বেড়ে যাবে তবুও ধানের দাম তো পাই না।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আফজাল হোসেন জানান, শীতের কারনে এমন হয়েছে এর জন্য প্রতি সন্ধ্যায় পলিথিন দিয়ে বীজতলা ঢেকে রাখতে ও সকালে পলিথিন সরিয়ে দিতে এবং  বীজতলায় সেচ দেয়ার পরামর্শও কৃষকদের দেয়া হচ্ছে।