মঙ্গলবার ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ ৪ঠা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

গুজব বা মিথ্যা তথ্য একটি দিয়াশলাইয়ের মতো-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, গুজব বা মিথ্যা তথ্য একটি দিয়াশলাইয়ের মতো। দিয়াশলাই কাঠি যেমন মুহুর্তেই জ্বলে উঠে ও বিশাল অগ্নিকান্ড ছড়াতে পারে, তেমনি কোনও গুজব সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় স্থিতিশীলতা নষ্ট করতে পারে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর কাওরান বাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে গুজব বিরোধী জনসচেতনতামূলক বিজ্ঞাপন “মিথ্যে রুখে, সত্য জানো” শিরোনামের (টিভিসি) উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

গুজবের প্রভাবে ২০১৬ সালের ২৯শে অক্টোবর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে হিন্দুদেও ঘরবাড়ির উপর হামলার কথা উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নাসিরনগরের কথা আমরা কেউ ভুলিনি। গুজব প্রতিরোধে ইতোমধ্যে র‌্যাবে ‘সাইবার ক্রাইম সেল’ গঠিত হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, কিছু দিন আগে ছোট ছোট স্কুলের ছেলেমেয়েরা রাস্তায় নেমে এসেছিল। যদিও তারা একটা সঠিক কারণেই রাস্তায় নেমেছিল। কিন্তু সেটাকে গুজব রটিয়ে ভিন্ন খাতে নেওয়ার অপচেষ্টা আমরা দেখেছি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অসাধুরা কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দিচ্ছে, কুরুচিপূর্ণ ছবি আপলোড করছে। যারাই গুজব ছড়িয়ে দিচ্ছে ও চেষ্টা করছে তাদের আমরা চিহ্নিত করেছি। তাদের বিরুদ্ধে আমরা কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেবো। সাধারন জনগনকে বলছি- সতর্ক থাকুন, আপনারা কেউ গুজবের ফাঁদে পড়বেন না। তথ্য আমাদের অধিকার। সঠিক তথ্য সঠিকভাবে যাচাই না করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার বা আপলোড করা যাবে না।

অনুষ্ঠানে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, এখন সবার হাতে হাতেই স্মার্টফোন। সোশ্যাল মিডিয়া এমন হয়ে গেছে, যে লেখাপড়া জানেনা সেও এটা ব্যবহার করছে। গুজব ছড়িয়ে রামুতে ভয়াবহ ঘটনা ঘটানো হয়েছে, ছাত্র আন্দোলনকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করা হয়েছে। সচেষ্ট না হলে সামাজিক মাধ্যমে গুজব ছড়িয়ে সমাজে শান্তি শৃঙ্খলা বিনষ্ট করে দিতে পারে।

র‌্যাব মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ বলেন, ডিজিটাল বিপ্লবের আড়ালে এক শ্রেণির বিকারগ্রস্ত, অসুস্থ মানুষ ইন্টারনেটে অপপ্রচার করছে। বিশেষ করে আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে বিশৃঙ্খলা করার জন্য গত ২/৩ মাস যাবত একশ্রেণির মানুষ উঠেপড়ে লেগেছে। তারা দেশ ও সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। সেই শ্রেণীর লোকজন মিথ্যা অপপ্রচার করে দেশবাসীকে বিভ্রান্ত করতে চাইছে। আমরা বিশ্বাস করি দেশবাসী এসব অপপ্রচারে বিভ্রান্ত হবে না।

ডিজি আরো বলেন, অসুস্থ্য, মূর্খ, অর্ধশিক্ষিত, বিকারগ্রস্থ, হতাশ ও কুরুচিসম্পন্ন লোকজন আগামী নির্বাচনকে বানচাল করার সজন্য গুজব ছড়াচ্ছে। নির্বাচন অবশ্যই একটি গণতান্ত্রীক পদ্ধতি। স্বল্প কিছু লোকের কাছে গণতন্ত্র কখনো মাথা নত করবে না।
অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া র‌্যাবের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।