শুক্রবার ২২ নভেম্বর ২০১৯ ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

গ্রাম হচ্ছে শহর, নাগরিক সুবিধা পাচ্ছে গ্রামীণ জনপদ

বীরগঞ্জ, দিনাজপুর থেকে বিকাশ ঘোষ॥ কুচকুচ অন্ধকার। রাতের গ্রামীণ মেঠোপথ মানেই সাধারণ পথযাত্রীদের ভয়ে ভয়ে চলাফেরা করা। সন্ধা নামলেই গ্রামের রাস্তাগুলো অন্ধকারাচ্ছন্ন। বীরগঞ্জ উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রামের মেঠোপথ গুলো সন্ধ্যার পরেই কুচকুচ অন্ধকার হয়ে পড়তো। সেই রাস্তাঘাটগুলো আলোর রশ্মিতে আলোকিত হয়ে উঠেছে। সন্ধ্যার পরেই বাতিগুলো জলে উঠায় সড়ক,গ্রামের মেঠোপথগুলো শহরী রাস্তায় পরিণত হয়েছে। দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার রাতের সড়ক, প্রত্যন্ত গ্রামের মেঠোপথগুলো আলোয় আলোকিত হয়েছে। দিনাজপুর -১( বীরগঞ্জ – কাহারোল) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপালের উদ্যোগে বীরগঞ্জ উপজেলার গ্রামীণ জনপদের সড়ক, মেঠোপথগুলোতে ষ্ট্রীট লাইট বসানোয় বীরগঞ্জ উপজেলার মেঠোপথগুলো হয়ে উঠেছে আলোকিত মেঠোপথ। প্রধানমন্ত্রীর ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌছে দেওয়ার অঙ্গীকার এখন গ্রামীণ সড়কগুলোকে সৌর বিদ্যুৎতের আলোয় আলোকিত করছে। জানা গেছে – উপজেলার ১১ ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাসহ প্রত্যন্ত গ্রামের মেঠোপথগুলোতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণ কর্মসূচির আওতায় ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে সৌর বিদ্যুৎসহ ৩শ ৩০টি ষ্ট্রীট লাইট বসানো হয়েছে। এসব ষ্ট্রীট লাইটের আলোয় আলোকিত হয়ে উঠেছে গ্রামীণ রাস্তাঘাট। এর সুফল পাচ্ছেন বীরগঞ্জ উপজেলাবাসী। ষ্ট্রীট লাইট বসানোয় গ্রামীণ মেঠোপথগুলো আলোয় আলোকিত হয়ে উঠেছে। উপজেলার ১৮৭টি গ্রামের ১নং শিবরামপুর ইউনিয়ন, ২নং পলাশবাড়ী,৩নং শতগ্রাম, ৪নং পাল্টাপুর, ৫নং সুজালপুর, ৬নং নিজপাড়া, ৭নং মোহাম্মদপুর, ৮ নং ভোগনগর, ৯নং সাতোর, ১০ নং মোহনপুর, ১১নং মরিচা ও বীরগঞ্জ পৌরসভার রাস্তার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ষ্ট্রীট লাইট বসানোয় হয়েছে। এই লাইটগুলো বসানোর ফলে সুফল পাচ্ছেন ইউনিয়নের প্রত্যন্ত এলাকার মেঠোপথগুলো হয়েছে আলোকিত। রাত হলেই রাস্তাগুলোতে জ্বলে উঠছে বাতির আলো। বীরগঞ্জ উপজেলার ৫নং সুজালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মহেশ চন্দ্র রায় জানান, বীরগঞ্জ উপজেলার ইউনিয়নের প্রত্যন্ত এলাকার রাস্তায় ষ্ট্রীট লাইট বসানোয় সাধারণ পথযাত্রীরা নির্ভিঘ্নে রাতে চলাচল করতে পারছে। এর সুফল পৌরসভাসহ গোটা উপজেলাবাসী পাচ্ছে। তবে রাস্তাগুলোয় আরও বেশি করে ষ্ট্রীট লাইট বসানো হলে ভাল হতো। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ ছানাউল্লাহ জানান, উপজেলার প্রতিটি রাস্তায় ষ্ট্রীট লাইট বসানো কাজ চলছে। এ উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাগুলোতে ষ্ট্রীট লাইট বসানো হয়েছে। ষ্ট্রীট লাইট বসানো কাজটি চলমান থাকবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইয়ামিন হোসেন জানান, বীরগঞ্জ উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাগুলোতে ষ্ট্রীট লাইট বসানো হয়েছে। ষ্ট্রীট লাইট বসানোয় এর সুফল পাচ্ছে বীরগঞ্জ উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকার মানুষগুলো। গ্রামের রাস্তাগুলো হয়েছে আলোকিত। রাত নামলেই একসময়ে অন্ধকার রাস্তাগুলো আজ আলোয় আলোকিত হয়েছে। এব্যাপারে দিনাজপুর-১( বীরগঞ্জ – কাহারোল) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌছে দেওয়ার অঙ্গীকার বাস্তবায়নে কাজ করছি মাত্র। তারই ফলশ্রুতিতে আমার নির্বাচনী এলাকা বীরগঞ্জ – কাহারোল উপজেলার গ্রামীণ সড়কগুলোকে সৌর বিদ্যুৎতের আলোয় আলোকিত করা হয়েছে। যাতে সাধারণ মানুষ নির্ভিঘ্নে রাতে চলাচল করতে পারে। শুধু রাস্তাই নয় মসজিদ,মাদ্রাসা,মন্দির, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান,মোড় ও ছোট ছোট বাজারে বসানো হয়েছে ষ্ট্রীট লাইট। এর ফলে উপজেলাবাসী নিরাপত্তাসহ নির্ভিঘ্নে চলাফেরা করতে পারছেন। এছাড়া বিদ্যুৎ ব্যবহারে বর্তমান সরকারের সোলার স্থাপন প্রকল্পটি একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহারে মানুষের পাশাপাশি পরিবেশও উপকৃত হচ্ছে। সৌর বিদ্যুৎ শুধু পরিবেশ বান্ধব তাই নয়, এটি সাশ্রয়ী ও নিরাপদ। এছাড়া সরকারি সুযোগ সুবিধা জনগণের দোরগোড়ায় পৌছে দেয়াই আমাদের মূল লক্ষ্য।