বৃহস্পতিবার ২৫ জানুয়ারী ২০১৮ ১২ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

ঘাসিপাড়া এলাকার অসহায় গরীব ও শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছে বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলা

এম.আর মিজান ॥ বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলা দিনাজপুর জেলা শাখার ধারাবাহিক কর্মসূচীর অংশ হিসেবে ২০ জানুয়ারী শনিবার ঘাসিপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এলাকার অসহায় গরীব ও শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে শীতার্তদের কম্বল বিতরণ করেন দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আজাদ বাবলু। দিনাজপুর জেলা বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোঃ শাহজাহান নভেলের সভাপতিত্বে বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলার সিনিয়র সাধারণ সম্পাদক ও মুখপাত্র মনিরুজ্জামান জুয়েল। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, দিনাজপুর সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কিশোর কুমার রায়, পৌর কাউন্সিলর আলহাজ্ব জিয়াউর রহমান নওশাদ, জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি জাকির হোসেন, বাস্তুহারা আওয়ামী লীগের ৩নং ওয়ার্ডের সভাপতি হারুনুর রশীদ হারুন প্রমূখ। সাংস্কৃতিক সম্পাদক প্রদীপ ঘোষের সঞ্চালনায় এতে আরো উপস্থিত ছিলেন, ফারজানা শারমীন রীনা, জয়ন্ত ঘোষ, আবুল কালামসহ সংগঠনের সর্বস্তরের সদস্য ও সংগঠকবৃন্দ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি আতাউর রহমান আজাদ বাবলু বলেন, এ দেশ সব সময় জাতির জনক কন্যা শেখ হাসিনার হাতেই নিরাপদ। মাতৃমমতা রয়েছে বলেই তিনি রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে উদারতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। ভূষিত হয়েছেন মাদার অব হিউম্যানিটিতে। শেখ হাসিনার সরকার দেশে বিদ্যমান আছে বলেই শীতার্তরা আজ আর কষ্ট পায় না। বন্যার্তরাও খুব অল্প সময়ে ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারে। সারাদেশে যে বৈপ্লবিক উন্নয়নের ধারা শুরু হয়েছে, তাতে শহর-গ্রাম-গঞ্জ কিছুই বাদ পড়ছে না। দিনাজপুরের রাস্তা-ঘাট, ব্রীজ-কালভার্টসহ যোগাযোগ ব্যবস্থার অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। শুধু তাই না, শিক্ষাক্ষেত্রে শিক্ষাবৃত্তি চালু করা হয়েছে। এছাড়া বয়স্কদের জন্য বয়স্ক ভাতাসহ মোট ১১৭ প্রকারের ভাতা এখন দেশে চালু হয়েছে। এ সবই শেখ হাসিনার অবদান। শেখ হাসিনা ভোরবেলা ফজরের নামাজ পড়েই এ দেশের দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য চিন্তায় ব্যস্ত হয়ে পড়েন। তাই সবাইকে আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনাকে আবার ক্ষমতায় আনতে তথা উন্নয়য়ের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে নৌকা মার্কায় ভোট দিতে হবে।