শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ঘোড়াঘাটে অবৈধ কয়লা কারখানা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে প্রশাসন

মোঃ শফিকুল ইসলাম, ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা কাঠ পুড়ে কয়লা উৎপাদন কারখানা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে প্রশাসন।

বুধবার দুপুরে উপজেলা প্রশাসন উপজেলার বিরাহিমপুর গুচ্ছগ্রামে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওয়াহিদা খানম ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের নিয়ে এক অভিযান পরিচালনা করেন।

এতে সরকারি নিয়ম না মেনে অবৈধ ভাবে দীর্ঘদিন ধরে কাঠ পুড়ে কয়লা উৎপাদন করার দায়ে কারখানা ভেঙ্গে ফেলা সহ ২ হাজার টাকা, রাস্তার পাশে অবৈধ ভাবে মালামাল মজুদ রাখার দায়ে ১০ হাজার টাকা, পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্রের শর্ত না মেনে পলিথিন, দড়ি ও প্লাস্টিক সামগ্রী তৈরি করার দায়ে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে ভ্রাম্যমান আদালত। উপজেলা নির্বাহী অফিস সূত্রে জানা যায়, বিরাহিমপুর গুচ্ছগ্রামের ব্যবসায়ী শুকুর আলী দীর্ঘদিন ধরে একই এলাকার দিনাজপুর-বগুড়া মহাসড়কের পার্শ্বে টিনের বেড়া দিয়ে ঘিরে ২৩টি চুল্লি তৈরি করে কাঠ পুড়ে কয়লা উৎপাদন করে আসছিল। পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ছাড়াই তিনি এই কয়লা উৎপাদন করছিলেন।

এতে একই দিনে সাথে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কে সম্প্রসারণ কাজে ঠিকাদার উপজেলার বিরাহিমপুর গুচ্ছগ্রামে হেলিপ্যাডের জায়গা টিনের বেড়া দিয়ে ঘিরে রাস্তার কাজের ইট ও যাবতীয় মালামাল রাখায় উপজেলা প্রশাসন নোটিশের মাধ্যমে সতর্ক করে দেয়। কিন্তু ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নোটিশকে অগ্রাহ্য করে। এতে ভ্রাম্যমান আদালত সঙ্গীয় ফোর্সসহ টিনের বেড়া ভেঙ্গে ফেলে এবং ১৫ দিনের মধ্যে মালামাল সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওয়াহিদা খানম জানান, সরকারি নিয়ম না মেনে অবৈধ ভাবে কাঠ পুড়ে কয়লা উৎপাদন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র শর্ত না মেনে, রাস্তার পাশে অবৈধ ভাবে মালামাল মজুদ রাখার দায়ে জরিমানা করা হয়।