সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ৮ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রাম টেস্ট জয় করলো আফগানরা

অবশেষে বৃষ্টিকে হার মানিয়ে বাংলাদেশকে কাঁদিয়ে চট্টগ্রাম টেস্ট হয় করলো আফগানরা। টেস্ট ক্রিকেটে আফগানদের জন্য এটি ঐতিহাসিক জয়। এক বছরের টেস্ট অভিজ্ঞতার সামনে ১৯ বছরের অভিজ্ঞ বাংলাদেশের লজ্জার পরজায়।

সফরে এক মাত্র টেস্টের পঞ্চম দিনে শেষ বিকেলে স্বাগতিকদের ২২৪ রানে হারিয়ে টেস্ট জয় করলো আফগান বাহিনী। এক মাত্র টেস্টে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে আফগানিস্তান ৩৪২ রান সংগ্রহ করে। জবাবে বাংলাদেশ ২০৫ রানে অলআউট। দ্বিতীয় ইনিংসে আফগানদের ২৬০ রান তুলে বাংলাদেশকে ৩৯৮ রানের লক্ষ্য দেয়। বাংলাদেশ নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৬১.৪ ওভারে ১৭৩ রানে অলআউট।

চট্টগ্রাম টেস্টের পঞ্চম দিন সোমবার ভোর থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টির কারণে দুপুর একটায় খেলা মাঠে গড়ালেও বৃষ্টি হানায় খেলা বন্ধ হয়। অবশেষে বিকাল ৪টা ২০ মিনিটে খেলা শুরু হয়। শেষ দিনের শেষ সেশন চলবে ৫টা ২০ মিনিট এবং খেলা হবে কমপক্ষে ১৮.৩ ওভার। কিন্ত সেটাও করতে পারেনি সাকিবের দল। 

দুই দফা খেলা বন্ধ থাকার পর শুরু হলে প্রথম বলেই বিদায় নেন সাকিব (৪৪)। মেহেদি হাসান মিরাজকে বিদায় করেন রশিদ খান। নিজের চতুর্থ উইকেট তুলে নেন রশিদ, মিরাজ ফেরেন ২৮ বলে ১২ রান করে।

শেষ ব্যাটসম্যান হিসাবে সৌম্য ১৫ রান করে রশিদ খানের বলে বিদায় নেন। দ্বিতীয় ইনিংসে রশিদ খান একাই নেন ৬টি উইকেট। মাত্র ২১.৪ ওভারে ৪৯ রানে এই উইকেট শিকার করেন তিনি। এছাড়া জহির খান নেন ১৫ ওভারে ৫৯ রানে তিনটি উইকেট।

চতুর্থ দিনে ৩৯৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশ ৬ উইকেট হারিয়ে ১৩৬ রান সংগ্রহের পর দিনের খেলা শেষ হয়। পঞ্চম দিনে বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হওয়ার পর্যন্ত ৪৬.৩ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রান। উইকেটে আছেন সাকিব আল হাসান (৪৪) এবং সৌম্য সরকার (২)।

এর আগে চট্টগ্রামে ভোর থেকে শুরু হওয়ার বৃষ্টি থামে সাড়ে ১১টার দিকে। আর এরপর সুপার সপাররা মাঠ শুকানোর কাজে নামে পৌনে ১২ টার দিকে। ম্যাচ অফিসিয়ালরা মাঠ পরিদর্শন শেষে জানায় ম্যাচ শুরু হবে দুপুর ১টায়।

টেস্টের প্রথম দিনে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন আফগান অধিনায়ক রশিদ খান। আর প্রথম ইনিংসে ৩৪২ রানে অলআউট হয় সফরকারীরা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে রশিদের ঘূর্ণিতে মাত্র ২০৫ রানে গুটিয়ে যায় স্বাগতিকদের ইনিংস। দ্বিতীয় ইনিংসে ২৬০ রানে থামে আফগানদের ইনিংস। আর টাইগারদের সামনে জয়ের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৯৮ রানের। চতুর্থ দিন শেষে বাংলাদেশ সংগ্রহ করে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৩৭ রান। সাকিব ৩৯ রান করে অপরাজিত ছিলেন।