মঙ্গলবার ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ ৪ঠা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

চালকের আসনে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ও উয়েস্ট ইন্ডিজের দুই ম্যাচ সিরিজের শেষ টেস্টে প্রথম দিনশেষে চালকের আসনে বাংলাদেশ। ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দৃঢ়তায় ভাল অবস্থানে থেকে দিন শেষ করেছে টাইগাররা। দিনশেষে টাইগারদের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ২৫৯ রান। সাকিব ৫৫ আর মাহমুদউল্লাহ ৩১ রানে অপরাজিত আছেন।

এর আগে আজ শুক্রবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। ভালো শুরু এনে দেন সৌম্য সরকার এবং অভিষিক্ত সাদমান ইসলাম। ভালো খেলতে খেলতেই হঠাৎ করেই বাজে শট খেলার ইচ্ছা জাগে সৌম্যের (১৯)। রোস্টন চেইসের বলে দূর থেকে শট খেলতে গিয়ের ধরা পড়েন শাই হোপের হাতে। ৪২ রানে ভাঙে উদ্বোধনী জুটি। এরপর দলের হাল ধরেন সাদমান এবং মুমিনুল। দারুণ ফর্মে থাকা মুমিনুল হক বেশ সাবলীল খেলছিলেন। লাঞ্চের ঠিক আগমুহূর্তে দলীয় ৮৭ রানে কেমার রোচের বলে বাজে শটে চেইসের হাতে ধরা পড়েন ২৯ রান করা বাঁহাতি এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান। এরপর দারুণ খেলছিলেন মিঠুন ও অভিষিক্ত সাদমান ইসলাম। কিন্তু দেবেন্দ্র বিশুর বলিং তোপে মিঠুন বোল্ড হলে ভাঙে এ জুটি। ৬১ বল খরচ করে ২৯ রান করেন মিঠুন। এরপর সাজঘরে ফেরেন অভিষেকে হাফ সেঞ্চুরী তুলে নেওয়া সাদমান ইসলাম। ১৯৯ বল খুইয়ে ৭৬ রান সংগ্রহ করেন তিনি। ৪ উইকেট হারিয়ে ১৭৫ রান করে চা বিরতেতে যায় বাংলাদেশ। চা বিরতি শেষে ভালই খেলছিলেন সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিম। কিন্তু ৪ ওভার খেলার পরেই ঘটে বিপত্তি। দলীয় ১৯০ রানে বিদায় নেন মুশফিক। ব্যক্তিগত ১৪ রান করে লুইসের বলে বোল্ড হন এই টাইগার উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান। বাকিটা সময় দেখে শুনে খেলে দিন পার করে দেন দলের দুই অভিজ্ঞ কাণ্ডারি সাকিব আল হাসান ও মাহমুল্লাহ রিয়াদ। সাকিব আল হাসান ক্যারিয়ারের ২৪তম হাফ সেঞ্চুরী তুলে নেন। এ ম্যাচে ব্যাটিংয়ে শক্তি বাড়াতে আরও একটি পরিবর্তন আনা হয়েছে দলে। অনুশীলনে চোট পাওয়া মুশফিকের ‘ব্যাক আপ’ হিসেবে জরুরি ভিত্তিতে দলের সঙ্গে যোগ দেওয়া লিটন দাসও ঢুকে গেছেন একাদশে। খেলবেন মিডল অর্ডারে। তাকে জায়গা করে মুস্তাফিজুর রহমানকে খেলানো হচ্ছে না এই টেস্টে। তবে সবচেয়ে অবাক করার বিষয় হলো এই টেস্টে বাংলাদেশ দলে নেই কোনো পেসার। বাংলাদেশ একাদশ : সাকিব আল হাসান, সৌম্য সরকার, সাদমান ইসলাম, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, লিটন দাস, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুন, তাইজুল ইসলাম, নাঈম হাসান। ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশ: ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট, কাইরন পাওয়েল, শেই হোপ, সুনিল আমব্রিস, রোস্টন চেইস, শিমরন হেটমায়ার, শেন ডাওরিচ, দেবেন্দ্র বিশু, জোমেল ওয়ারিক্যান, শারমন লুইস, কেমার রোচ।