বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৮ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

চিরিরবন্দরে জমির টাকা নেয়ার পরেও দলিল দিতে তালবাহানা

মো. রফিকুল ইসলাম, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ চিরিরবন্দরে জমি বিক্রির টাকা হাতিয়ে নিয়েও দলিল করে দিতে মালিক নানা তালবাহানা করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

জানা গেছে, উপজেলার সাতনালা ইউনিয়নের খামার সাতনালা গ্রামের শাহজাহান আলী শাহ্র ছেলে মো. সাজ্জাদ হোসেন বকুলের নিকট একই গ্রামের মৃত কেরামত আলীর ছেলে মো. মোতাহার হোসেনসহ অধ্যক্ষ মোকলেসুর রহমান, মহুবর রহমান, মহব্বত আলী ও শিক্ষক হায়দার আলী ওই ইউনিয়নের চিনিবাসডাঙ্গা বাজারের সন্নিকটে উত্তর পাশে চিরিরবন্দর-রাণীরবন্দর সড়ক সংলগ্ন জেএল নং ১২ মৌজা-ইছামতির ২৪৭, ২৪৮ ও ২৫০ নং দাগের সাড়ে ৯০ শতক জমি বিক্রির জন্য প্রস্তাব দেয়। তার প্রস্তাব অনুযায়ী সাজ্জাদ হোসেন বকুল ওই জমি কেনার জন্য রাজী হয়। জমির মূল্য নির্ধারণ হয় ৬১ লাখ টাকা। গত ২০১৮ইং সালের ১৪ মে মোতাহার হোসেন ওই জমির মূল্য বাবদ ২০ লাখ টাকা বুঝিয়ে নিয়ে সাজ্জাদ হোসেন বকুলকে বায়নানামা দলিল করে দেয়। যার দলিল নং ৩১৬৫/১৮। সুচতুর মোতাহার হোসেনসহ অধ্যক্ষ মোকলেসুর রহমান, মহুবর রহমান, মহব্বত আলী ও শিক্ষক হায়দার আলী একই এলাকার অধিবাসী এবং পরিচিতজন বলে ছলচাতুরীর আশ্রয় নিয়ে সুকৌশলে জমির সম্পূর্ণ টাকা সাজ্জাদ হোসেন বকুলের নিকট থেকে হাতিয়ে নেয়। টাকা হাতিয়ে নেয়ার পরও জমির দলিল করে দিতে সুচতুর মোতাহার হোসেনসহ অন্যরা আজকাল করে কালক্ষেপণ করতে থাকে। অদ্যাবধি জমির দলিল করে না দেয়ার কারণে সাজ্জাদ হোসেন বকুল বিভিন্ন জায়গায় ধর্ণা দিয়েও কোন সুরাহা করতে পারছেন না। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email