বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯ ৩রা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জঙ্গিবাদকে রুখতে প্রত্যেক উপজেলায় সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড ছড়িয়ে দিতে হবে-সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

ফজিবর রহমান বাবু ॥ সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি বলেছেন, জঙ্গিবাদকে রুখতে হলে প্রত্যেক ইউনিয়ন ও উপজেলায় সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড ছড়িয়ে দিতে হবে। সেই কর্মকান্ডের মধ্যদিয়ে আগামী বছর মুজিব বর্ষ পালন হবে। বাংলাদেশ প্রত্যেক জনগোষ্ঠীর দেশ। তাই সকল জাতি সত্বার বিকাশ নিশ্চিত করতে হবে। এই দেশে যারা ধর্মের দোহাই দিয়ে অপকর্ম করে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের ছাড় দেন না। যারা ধর্মের দোহাই দিয়ে অপকর্ম করে তারা মানুষ নয় পশু। এই সমস্ত পশুদের কঠিন সাজা হবেই। পাশাপাশি যারা বাংলাদেশের গণতন্ত্রকে নষ্ট করতে চায় তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।

গত ৩০ জুন ২০১৯ ছিল সাঁওতাল বিদ্রোহ দিবস। দিবসটি উদ্যাপনে ৯ জুলাই ২০১৯ মঙ্গলবার জেলার কাহারোল উপজেলার ঐতিহাসিক কান্তনগর মন্দির প্রবেশ সড়ক দ্বীপে তেভাগা চত্বরে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন।

প্রত্যেক বছর দিনাজপুরের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীকে আর্থিক সহায়তা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করে প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ আরো বলেন, আদিবাসীদের সংগ্রামকে বেগবান করতে হবে। কোন অযুহাতেই যেন আদিবাসীদের জমি কেউ দখল করতে না পারে। সেদিকে আদিবাসীসহ প্রত্যেককে সচেতন থাকতে হবে।

দিনাজপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও দিনাজপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইমাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাঁওতাল বিদ্রোহ দিবস উদযাপন কমিটির আহবায়ক নারায়ন মার্ডি।

অন্যান্যদের বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জয়নুল আবেদীন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মাহাফুজ্জামান আশরাফ, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরে নুরুজ্জামান হক, জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সভাপতি রবীন্দ্র নাথ সরেন, কাহরোল উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল মালেক সরকার, গ্রাম বিকাশ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রধান মো. মোয়াজ্জেম হোসেন, দিনাজপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র বীরমুক্তিযোদ্ধা সফিকুল হক ছুটু, দৈনিক আজকের দেশবার্তা’র সম্পাদক চিত্ত ঘোষ, লেখক ও গবেষক ড. মাসুদুল হক, সড়ক ও দিনাজপুর সড়ক ও জনপদের নির্বাহী প্রকৌশলী সুনীতি চাকমা, কাহারোল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নাসিম আহমেদ, জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক সুলতান কামাল উদ্দিন বাচ্চু, কাহারোল উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম ফারুক প্রমুখ।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন গ্রাম বিকাশ কেন্দ্রর সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার সারা মারান্ডী।

অনুষ্ঠানে সাঁওতাল বিদ্রোহ দিবস উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব রবীন মুর্মু সকল স্তরের মানুষ অংশ গ্রহণ করে।

আলোচনা সভা শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে মনোমুগ্ধকর সঙ্গীত পরিবেশন করেন ভারতের বিখ্যাত আদিবাসী শিল্পী রথীন কিস্কু ও স্থানীয় আদিবাসী শিল্পিরা।

এর আগে ঐতিহাসিক নয়াবাদ মসজিদ ও কান্তজীউ মন্দির পরিদর্শন ও সাঁওতাল বিদ্রোহ দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে ঐতিহাসিক কান্তনগর মন্দির প্রবেশ সড়ক দ্বীপে তেভাগা চত্বরে সিঁধু-কানু ভাস্কর্যে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি।