মঙ্গলবার ১৯ মার্চ ২০১৯ ৫ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

জাতিসংঘ দূতকে বহিষ্কার করল সোমালিয়া

সোমালিয়ায় নিযুক্ত জাতিসংঘের শীর্ষ পর্যায়ের একজন কর্মকর্তাকে দেশ ছাড়ার  নির্দেশ দিয়েছে মোগাদিশু সরকার। সোমালিয়ার সার্বভৌমত্বের ওপর হস্তক্ষেপের জন্য তাকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। জাতিসংঘ সমর্থিত সোমালিয়ার নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মকাণ্ডে উদ্বেগ প্রকাশ করার পর দেশটির সরকার এ ব্যবস্থা নিল। সোমালিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গতকাল (মঙ্গলবার) এক বিবৃতিতে বলেছে, জাতিসংঘ মহাসচিবের সোমালিয়া বিষয়ক বিশেষ দূত নিকোলাস হেইসমকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়েছে এবং তিনি এখন আর এ দেশে কাজ করতে পারবেন না। বিবৃতিতে পরিষ্কার করে বলা হয়েছে, সোমালিয়ায় তৎপরত জাতিসংঘ কার্যালয়ের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ আচরণের জন্য তাকে অবাঞ্ছিত করা হয়েছে। তবে বিষয়টি নিয়ে সোমালিয়ায় জাতিসংঘ দপ্তর কোনো মন্তব্য করে নি।

গত ৩০ ডিসেম্বর হেইসম সোমালিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে একটি চিঠি দিয়েছেন যাতে তিনি বলেছেন যে, জাতিসংঘ সমর্থিত নিরাপত্তা বাহিনী মুখতার রোবোকে আটকের ঘটনায় জড়িত ছিল। এছাড়া, ১৩, ১৪ ও ১৫ ডিসেম্বর যে ১৫ জন বেসামরিক নাগরিককে হত্যা এবং ৩০০ ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে তার সঙ্গেও এ বাহিনী জড়িত। রোবো হচ্ছেন সশস্ত্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আশ-শাবাবের সাবেক সদস্য এবং গত মাসে অনুষ্ঠিত স্থানীয় একটি নির্বাচনে তার নেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশের প্রচেষ্টা আটকে দিয়েছে সোমালি সরকার।

সোমালিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, দক্ষিণাঞ্চলীয় বাইদোয়া শহরে সশস্ত্র সন্ত্রাসী এবং অস্ত্র আনার সন্দেহে রোবোকে আটক করা হয়েছে। তার আটকের পর রোবোর অনুগত গেরিলা ও সরকারি সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। ওই সংঘর্ষে ইথিওপিয়ার সেনারাও জড়িত হয়ে পড়ে। এসব সেনা সোমালিয়ায় আফ্রিকান ইউনিয়নের শান্তিরক্ষী বাহিনী হিসেবে কাজ করছে।