বৃহস্পতিবার ১৬ জুলাই ২০২০ ১লা শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ঠাকুরগাঁওয়ে করোনা উপসর্গ নিয়ে দুই জনের মৃত্যু

রবিউল এহ্সান রিপন, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ॥ ঠাকুরগাঁওয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এক নারী ও এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সদর হাসপাতালে ওই নারী মারা যান। স্বামীর বাড়ির লোকজন লাশ নিতে অস্বীকৃতি জানালে পরে বাপের বাড়ির এলাকায় লাশ দাফন করা হয়।

ঠাকুরগাঁও সিভিল সার্জন ডা: মাহফুজার রহমান সরকার জানান, সদর উপজেলার আকচা ছোট বঠিনা গ্রামের রানী (২৩) নামে ওই মহিলা করোনায় আক্রান্ত হয়ে সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

কিন্তু তার শ্বশুড়বাড়ির লোকজন তথ্য গোপন করায় দেরীতে করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এ অবস্থায় শুক্রবার ভোর রাতে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সে মারা যায়। রানী ওই এলাকার সহিদুর রহমান রাজার মেয়ে ও সদর উপজেলার আউলিয়াপুর কচুবাড়ী এলাকার আকবার আলীর স্ত্রী।

সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, প্রথমে তার স্বামীসহ শ্বশুড়বাড়ির লোকজন রানীর লাশ নিতে অস্বীকৃতি জানায়। তার বাপের বাড়িতে লাশ নিয়ে গেলে সেখানেও এলাকাবাসী লাশ দাফনে বাধা প্রদান করে।

পরে সদর উপজেলার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ইমাম ও সদর স্যানিটারি ইন্সপেক্টরের তত্ত্বাবধানে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের কশালবাড়িতে ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী দাফন করা হয়। এসময় সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বার উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে, করোনা উপসর্গ নিয়ে বৃহস্পতিবার এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। গত বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে জ্বর ও গলাব্যাথা নিয়ে ওই যুবক ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়। পরে বৃহস্পতিবার দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করেন।

করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু বরণকারি যুবকের নাম আব্দুল জলিল (২৩)। তিনি ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ভানোর ইউনিয়নের নেংটিহারা গ্রামের মইজ উদ্দিনের ছেলে।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা: রাকিবুল আলম।

উল্লেখ্য যে, শুক্রবার নতুন ১৭ জন আক্রান্ত সহ জেলায় মোট ৮৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ২৪ জন সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email