শনিবার ২৪ অগাস্ট ২০১৯ ৯ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ডেঙ্গু পরীক্ষায় অতিরিক্ত ফি নেওয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে সৈয়দপুরের পপুলার ল্যাবে জরিমানা

মোঃ জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি ॥ ডেঙ্গু পরীক্ষায় অতিরিক্ত ফি নেওয়ায় নীলফামারীর সৈয়দপুরের পপুলার ল্যাবকে ১১ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

৩ আগস্ট (শনিবার) রাতে শহরের শহীদ তুলশীরাম সড়কস্থ পপুলার ল্যাবে ওই ঘটনা ঘটে।

সৈয়দপুর উপজেলার বাঙালিপুর ইউনিয়নের চৌমুহনী এলাকার বাড়াইশালপাড়ার আবুল কালামের পুত্র মেহেদী হাসান (১৮)। সম্প্রতি এইচএসসি পরীক্ষায় শেষে সংসারের অভাব মেটাতে গত ৩০ জুলাই ঢাকায় যান মেহেদী হাসান। রাজধানীর মিরপুরে একটি কোম্পানীতে ইলেকট্রিশিয়ান হিসেবে কাজ করতে গিয়ে জ্বরে আক্রান্ত হয় সে। শুক্রবার জ্বর নিয়ে বাড়িতে আসে। শনিবার সন্ধ্যায় শহরের বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ শেখ নরজুল ইসলামের শরণাপন্ন হয় সে। চিকিৎসক তাকে ডেঙ্গু রোগ সনাক্ত করতে এনএস-১ টেস্ট করতে পপুলার ল্যাবে পাঠায়। ল্যাব কর্তৃপক্ষ সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ওই টেস্টের মূল্য ৫শত টাকার স্থলে ১২ শত টাকা গ্রহণ করে।

ঘটনাটি তাৎক্ষনিক উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম গোলাম কিবরিয়াকে অবহিত করলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচার সহকারী কমিশনার (ভুমি) পরিমল কুমার সাকার ওই ল্যাবে উপস্থিত হয়ে ঘটনার সত্যতা পান। এ সময় ল্যাবের বোর্ডে ওই টেস্টের মূল্য ১২০০ টাকা উল্লেখ রয়েছে বলে তিনি নিশ্চিত।

পরে ভুক্তভোগী ওই রোগীকে লাবের মালিক ডাঃ দেলোয়ার অতিরিক্ত টাকা ফেরত দেন। কিন্তু এমন অপরাধের জন্য ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ল্যাব কর্তৃপক্ষকে ১১ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

উল্লেখ্য যে, টেস্টে মেহেদী হাসান নামে ওই রোগী ডেঙ্গু আক্রান্ত বলে নিশ্চিত করেছে চিকিৎসক ডাঃ শেখ নজরুল ইসলাম।