সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ডোমারে আবাসিক এলাকায় মুরগীর খামার স্থাপন, বিষ্ঠার দুর্গন্ধে অতিষ্ট এলাকাবাসী

মোসাদ্দেকুর রহমান সাজু, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি ॥ নীলফামারীর ডোমারে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের স্বামী আবাসিক এলাকায় মুরগীর খামার স্থাপন করায় কারনে মুরগীর বিষ্ঠার দুর্গন্ধে দুর্বিসহ উঠেছে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। এ ঘটনায় স্থানীয়রা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে মুরগীর খামারটি বন্ধের জন্য আবেদন জানিয়েছেন।
অভিযোগের আলোকে জানাযায়, সোমবার (১০ই আগষ্ট) ডোমার উপজেলার সদর ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড ও পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ড জুম্মা পাড়ায় প্রায় দুইমাস পুর্বে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের স্বামী মোঃ আমিনুর রহমান এলাকাবাসীর প্রবল আপত্তি থাকা সত্ত্বেও জোর পুর্বক মসজিদ,মাদ্রাসা সংলগ্ন আবাসিক এলাকায় একটি সোনালি ও ব্রয়লার মুরগীর খামার স্থাপন করেন। উক্ত খামারের কারনে এলাকার মানুষ মুরগীর বিষ্ঠার দুর্গন্ধে বাড়ীতে থাকতে পারছেনা। মুসল্লীরা বিষ্ঠার গন্ধের কারনে মসজিদে ঠিকমত নামাজ আদায় করতে পারছেনা। আবাসিক এলাকায় খামারের বিষ্ঠার দুর্গন্ধে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে জনস্বাস্থ্য হুমকির মুখে পড়েছে। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের স্বামী হওয়ার কারনে এলাকার মানুষের সকল বাধা বিপত্তি উপেক্ষা করে তিনি জোর পুর্বক খামার স্থাপন করেন।এবং তিনি স্থানীয়দের বলেন তোমাদের কি করার আছে তোমরা করে দেখাও।

স্থানীয় এলাকাবাসী মাসুদ বিন আমিন সুমন, অলিয়ার রহমান ও দেলোয়ার হোসেন বলেন, ঐ এলাকাটি ঘন বসতিপুর্ন, সেখানে একটি মসজিদ ও মাদ্রাসা রয়েছে, খামার স্থাপন করার সময় আমরা তাকে নিষেধ করলেও তিনি আমাদের কথার তোয়াক্কা না করে প্রভাব খাটিয়ে সেখানে খামার স্থাপন করেন। খামারের মুরগীর বিষ্ঠার দুর্গন্ধে এলাকাটি এখন বসবাসের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে। শিশু ও বয়স্ক মানুেষরা দুর্গন্ধের কারনে অসুস্থ্য হয়ে পড়ছে।

এ ব্যাপারে এলাকাবাসী সকলে একজোট হয়ে গত ১০ই আগষ্ট সোমবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিনা শবনমের কাছে মসজিদ সংলগ্ন আবাসিক এলাকায় খামারটি বন্ধ করার জন্য লিখিত অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিনা শবনম অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলে এলাকাবাসীর সমস্যাটির সমাধান করা হবে।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email