বুধবার ১ এপ্রিল ২০২০ ১৮ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ডোমারে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় জন সচেতনতা মূলক নানা কার্যক্রম।

মোসাদ্দেকুর রহমান সাজু, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি ॥
সারা দেশের ন্যায় নীলফামারীর ডোমারে মরনব্যাধী করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় নানা রকম জন সচেতনতা মূলক কার্যক্রম পরিচালনা করছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ। উপজেলা প্রশাসন , পৌরসভা ও ১০টি ইউনিয়ন পরিষদ।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের আওতাধীন ১টি পৌরসভা ও ১০টি ইউনিয়ন পরিষদে ২১ সদস্য বিশিষ্ঠ কমিটি করে জন সচেতনতা মূলক কার্যক্রম পরিচালনা করছে। অপর দিকে পৌরসভাসহ ১০ ইউপি চেয়ারম্যানগন তাদের নিজ নিজ এলাকায় মাইকিং এর মাধ্যমে প্রচার প্রচারনা চালাচ্ছে ও লিফলেট বিতরন করছেন। যাতে সাধারন মানুষ আতংকিত না হয় সে জন্য বাড়ী বাড়ী গিয়ে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের পরামর্শ প্রদান করছেন। বিদেশ থেকে কেউ তার নিজ বাড়ীতে এলে তাৎক্ষনিক খবরটি পরিষদে পৌছানোর নির্দেশ প্রদান করছেন। একই ভাবে ডোমার পৌর মেয়র আলহাজ¦ মনছুরুল ইসলাম দানু তার পৌর এলাকায় মাইকিং এর মাধ্যমে প্রচার প্রচারনা চালাচ্ছেন ও লিফলেট বিতরন করছেন, পাশা পাশি বিভিন্ন হোটেল ও চায়ের দোকানে লোক সমাগম কমিয়ে নিজ নিজ বাড়ীতে থাকার পরামর্শ প্রদান করেন। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও বিশেষ মনিটরিং কার্যক্রম পরিচালনা করছে। ইতিমধ্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ক্ষুদ্র্ঋণ কার্যক্রমের সাথে যুক্ত সকল দপ্তর ও এনজিওকে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পযন্ত সাধারন মানুষের ঋনের কিস্তি শিথিল রাখার আহবান জানিয়েছেন। এই করোনা ভাইরাসকে পুঁজি করে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী চালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়ীয়ে অধিক মুনাফা হাতিয়ে নিচ্ছে। বিষটি উপজেলা প্রশাষনের নজরে এলে , উপজেলা প্রশাষন,ডোমার থানা ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স যৌথ ভাবে ভোক্তা অধিকার আইনে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে জরিমানা করায় দ্রব্যমূল্যের বাজার বর্তমানে স্থিথিশীল রয়েছে। এই চলমান প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকলে সাধারন মানুষ অসাধু ব্যবসায়ীদের হাতথেকে রক্ষা পাবে বলে অনেকেই মত প্রকাশ করেন। উপজেলা স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা ডা: মোহাম্মদ ইব্রাহীম জানান বর্তমানে ডোমার উপজেলায় করোনা আক্রান্ত কোন রোগী নেই, শুধু হোম কোয়ারেন্টাইনে ৩৫জন রয়েছে। তিনি আরও বলেন উপজেলায় সকল স্থরের লোক নিয়ে ১০২টি টিম গঠন করা হয়েছে, তারা সার্বক্ষনিক মনিটরিং করছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিনা শবনম বলেন আমরা বাড়ী বাড়ী যাচ্ছি , আমাদের অফিসারদের ট্যাক করা হয়েছে, তারা প্রতিনিয়ত মনিটরিং করে আপডেট জানাচ্ছেন। ডোমার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সেনাবাহিনীর ক্যাম্প রয়েছে,সন্ধার পর থেকে তারা পেট্রোলিং করবে। ডোমার থানা অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান জানান করোনা ভাইরাসে আতংকিত না হওয়ার জন্য জনগনকে উদ্বুদ্ধ করছি , বাজার মনিটরিং করে দ্রব্যমূল্য স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করছি, প্রয়োজনে মনিটরিং আরো জোড়দার করা হবে।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email