রবিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ডোমারে পুলিশ পরিচয়ে প্রতারনাকালে পিতা-পুত্র আটক

নীলফামারী প্রতিনিধি : নীলফামারীর ডোমার বাজারে দু’টি কাপড়ের দোকানে পুলিশের পরিচয় দিয়ে প্রতারনা করার সময় পিতা-পুত্রকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে ব্যবসায়ীরা। আজ রবিবার দুপুরে শহরের আন্ধারুর মোড় নামকস্থান থেকে তাদের আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে পুলিশের নামে একটি ন্যামপ্লেটসহ একটি মটকসাইকেল (রাজশাহী-ল-১১-২৫১০) আটক করা হয়। আটকরা হলেন,রংপুর আলম নগর সেনপাড়া এলাকার মৃতঃ আব্দুল হামিদের ছেলে আবুল কালাম আজাদ(৫৫) ও তার ছেলে মাইদুল ইসলাম রাহী(১৬)। নলিফামারীর জলঢাকা উপজেলার আলা এ্যান্ড ব্রাদার্স পেট্রোলপাম্প এলাকায় গত আটমাস থেকে তারা অবস্থান করছেন বলে জানিয়েছেন প্রতারক আবুল কালাম আজাদ।

জানা যায়, ডোমার শহরের বাজার মসজিদ মাকের্টের কাউন্সিলর আহসান হাবিব এর হিমি বস্ত্রালয় ও যুবরাজের লিপন গার্মেন্টেসে ডোমার থানার নতুন এসআই রাশেদ পরিচয় দিয়ে আবুল কালাম আজাদ তার মেয়ের বিয়ের কথা বলে তাদের দোকান থেকে প্রায় ২৫ হাজার টাকার শাড়ী,থ্রিপিজ ও লুঙ্গি থানায় গিয়ে তার স্ত্রী ও মেয়েকে দেখানোর কথা বলে নিয়ে আসে। দোকানদাররা তাদের কাছে কাপরের দাম চাইলে আবুল কালাম বলেন, আরো বেশি টাকার কাপর কেনা হবে। থানায় গিয়ে আগে স্ত্রী,সন্তানদের দেখাই। তাদের পছন্দ হলে টাকা দিয়ে যাব। আর পছন্দ না হলে কাপরগুলো ফেরত দিবো।তাদের কথার মধ্যে সন্দেহ দেখা দিলে ব্যবসায়ী হাবিব তাদের পিছনে একজন লোক লাগায় দেয়।  এ সময় তারা জলঢাকার দিকে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকাবাসী আন্ধারুর মোড় নামকস্থানে তাদের আটক করে থানায় সোপর্দ করে। এ সময় দোকান থেকে নেওয়া কাপর ও ১৩৫ সিসি একটি মোটর সাইকেল জব্দ করা হয়।  এ সময় আবুল কালামের পরনে পুলিশের প্যান্টছিল। সে নিজেকে সাবেক পুলিশের এএসআই পরিচয় দিয়ে বলে ২০১৪ সালে আশুলিয়া থানা থেকে তিনি অবসর গ্রহন করেন। তবে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তিনি কোন প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি।  কাউন্সিলর হাবিব জানান, থানার পরিচয় দেওয়ায় আমরা তাকে বিশ্বাস করে কাপড় দেই। তবে তাদের আচরন আমার সন্দেহ হওয়ায় আমি পুলিশে খবর দেই। থানার অফিসার আন চার্জ মোঃ মোকছেদ আলী পুলিশের পরিচয়ে প্রতারনা করার অপরাধে পিতা-পুত্রকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।