শনিবার ১৮ অগাস্ট ২০১৮ ৩রা ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় আসিফের মুক্তি দাবিতে মানববন্ধন

সুরকার,গীতিকার ও কণ্ঠশিল্পী শফিক তুহিনের করা মামলায় গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে গ্রেপ্তার হন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবর। এর পরদিন আদালত তার বিরুদ্ধে রিমান্ড আবেদন ও জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়। তবে বিষয়টি কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না দেশব্যাপী আসিফ ভক্তরা।

আসিফের বিরুদ্ধে মামলার বিষয়টিকে ‘ষড়যন্ত্রমূলক’ উল্লেখ করে ঢাকাসহ বেশকিছু জেলা শহরে মানববন্ধন করে ভক্ত অনুরাগীরা। এমনকি ঈদের আগেই প্রিয় শিল্পীকে মুক্ত দেখতে চান বলেও দাবি জানান তারা।

‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’ খ্যাত এই শিল্পীর মুক্তির দাবিতে ঢাকা ও ঢাকার বাইরে বিভিন্ন জেলায় আজ শুক্রবারও মানববন্ধন করেন অসংখ্য ভক্ত অনুরাগী। জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে যোগ দেয় কয়েকটি সংগঠন। মানববন্ধন থেকে বলা হয়, ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে কণ্ঠশিল্পী শফিক তুহিন এবং প্রিতম আহমেদ আসিফ আকবরের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করেছেন। এ ঘটনাকে দেশের সংগীতাঙ্গনের কলঙ্কজনক অধ্যায় হিসেবেও মানববন্ধন থেকে আখ্যায়িত করা হয়।

এদিকে কুমিল্লাতেও শুক্রবার বেলা ৩টায় কুমিল্লা শহরের জিলা স্কুল রোডে মানববন্ধন করেছে আসিফের কুমিল্লা জিলা স্কুলের সহপাঠিসহ ক্রিকেটার ও বিশিষ্টজনরা। সেসময় ঈদের আগেই তারা আসিফ আকবরের মুক্তি দাবি করেন। এর আগে কুমিল্লার শিল্পীরা শহরের কান্দিরপাড়ে মানববন্ধন করেন।

তবে এসব মানববন্ধনের পেছনে আসিফের পরিবারের কোনো সম্পৃক্ততা নেই বলে জানানো হয় আসিফের পরিবার থেকে। আসিফের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেইজ থেকে জানানো হয়: আসিফ আকবর এর গ্রেপ্তারকে কেন্দ্র করে তার ভক্ত-শ্রোতারা সারা বাংলাদেশ এবং বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে মানববন্ধন করছেন। এই ধরনের মানববন্ধন এর সংশ্লিষ্টদের সাথে আসিফ আকবরের পরিবার বা অ্যাডমিন প্যানেলের কোন সম্পর্ক নেই। তারপরও আসিফ আকবরকে ভালোবেসে তার ভক্তরা তা করেই যাচ্ছেন। মানববন্ধন সংশ্লিষ্টদের প্রতি আমাদের অনুরোধ থাকবে, আপনারা খেয়াল রাখুন যেন অপ্রীতিকর কোন কিছু না ঘটে।

শুধু তাই নয়, কোনো ভক্ত যেনো কারো বিরুদ্ধে কোনো নেতিবাচক মন্তব্য না করেন সে আহ্বানও জানানো হয়। ফেসবুক পেইজ থেকে বলা হয়, ফেসবুকে আসিফ আকবর এর পক্ষপাতিত্ব করতে গিয়ে কাউকে হেয় করা বা নেতিবাচক মন্তব্য করা থেকে সম্পূর্ণ বিরত থাকুন। এটা খুবই বিব্রতকর।

প্রসঙ্গত তথ্যপ্রযুক্তি আইনে দায়ের করা একটি মামলায় মঙ্গলবার মধ্যরাতে গ্রেপ্তার হন আসিফ। এরপর আসিফের বিরুদ্ধে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিলেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিআইডির উপপরিদর্শক প্রলয় রায়। কিন্তু বুধবার আদালত আসিফের বিরুদ্ধে রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

আসিফের বিরুদ্ধে করা মামলার অভিযোগ নামায় শফিক তুহিন উল্লেখ করেছেন, গত ১ জুন একটি বেসরকারি টেলিভিশনের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের মাধ্যমে তিনি জানতে পারেন, আসিফ আকবর তার অনুমতি ছাড়াই তার সংগীতকর্মসহ অন্যান্য গীতিকার, সুরকার ও শিল্পীদের ৬১৭টি গান সবার অজান্তে বিক্রি করেছে। পরে তিনি বিভিন্ন মাধ্যমে যোগাযোগ করে জানতে পারেন, আসিফ আকবর আর্ব এন্টারটেইনমেন্টের চেয়ারম্যান হিসেবে অন মোবাইল প্রা. লি. কনটেন্ট প্রোভাইডার, নেক্সনেট লি. গাক মিডিয়া বাংলাদেশ লি. ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে গানগুলো ডিজিটাল রূপান্তরের মাধ্যমে ট্রু-টিউন, ওয়াপ-২, রিংটোন, পিআরবিটি, ফুলট্রেক, ওয়াল পেপার, অ্যানিমেশন, থ্রি-জি কন্টেন্ট ইত্যাদি হিসেবে বাণিজ্যিক ব্যবহার করে অসাধুভাবে ও প্রতারণার মাধ্যমে বিপুল অর্থ উপার্জন করেছে।