শনিবার ২৬ মে ২০১৮ ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ঢাকা আসছেন গর্ডন গ্রিনিজ

হঠাৎ আবার ঢাকা আসছেন গর্ডন গ্রিনিজ। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) হন্যে হয়ে কোচ খুঁজছে। রিচার্ড পাইবাস, ফিল সিমন্স, জাস্টিন ল্যাঙ্গার, গ্যারি কার্স্টেনসহ কতজনের কথাই শোনা গেছে। কিন্তু তারা কেউ আর কোচ হচ্ছেন না, সেটাও নিশ্চিত। তাই গর্ডন গ্রিনিজের ঢাকা আসার কথা শুনে নিশ্চয়ই ভাবছেন, কি জানি তবে কি আবার বাংলাদেশের কোচ হবেন এই ক্যারিবীয়ান গ্রেট? এমন প্রশ্ন উঠতেই পারে। তবে আসলে তা নয়।

বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক কোচ গ্রিনিজ আসছেন মূলতঃ একটি আন্তর্জাতিক গলফ প্রতিযোগিতার অতিথি হয়ে, যার অন্যতম আয়োজক গর্ডনেরই শিষ্য বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট অধিনায়ক নাইমুর রহমান দুর্জয়। দুর্জয় নিজেই আজ সকালে জাগো এই খবরটি নিশ্চিত করেছেন। দুর্জয় জানান, আগামীকাল ঢাকা আসছেন গ্রিনিজ।

ঠিক তার হাত ধরেই আইসিসির সহযোগী সদস্যদের গন্ডি পেরিয়ে ক্রিকেটের বিশ্বমঞ্চে পা রেখেছিল বাংলাদেশ-তা বলা হয়তো বাড়াবাড়ি হয়ে যাবে। কারণ ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশ আইসিসি ট্রফি খেলতে যাবার অল্প ক’দিন আগে কোচ হয়ে এসেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ তথা বিশ্ব ক্রিকেটের সব সময়ের অন্যতম সেরা ওপেনার গর্ডন গ্রিনিজ। তারপরের কাহিনী সবার জানা। এ ক্যারিবীয় গ্রেটের পরিচর্যা, তত্ত্বাবধান ও বুদ্ধি-পরামর্শে দু’বছরের মধ্যেই বদলে যায় বাংলাদেশ।

১৯৯৯ সালে যুক্তরাজ্যে প্রথমবার বিশ্বকাপ খেলতে গিয়ে গর্ডন গ্রিনিজের কোচিংয়েই পাকিস্তানের প্রচন্ড শক্তিশালী দলকে হারিয়ে বিশ্বকে চমকে দেন আমিনুল, সুজন, আকরাম, নান্নু, দুর্জয়, পাইলট ও রফিকরা। কিন্তু ৩১ মে নর্দাম্পটনে পাকিস্তানকে হারানোর রাতেই বিদায়ঘন্টা বেজে যায় গ্রিনিজের। ৯৭ সালে আইসিসি ট্রফি বিজয়ের অন্যতম রূপকার ও নৈপথ্য কারিগর হিসেবে রাজধানী ঢাকায় ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত গর্ডন দু’বছর পর বিশ্বকাপ শেষে আর ঢাকায় ফিরতে পারেননি। ইংল্যান্ডে থাকা অবস্থায় তাকে বরখাস্ত করা হয়। শেষ হয়ে যায় ক্রিকেটের জীবন্ত কিংবদন্তী গর্ডন গ্রিনিজের প্রশিক্ষক উপাখ্যান।

এবার আবার বাংলাদেশে গর্ডন। তবে ক্রিকেটীয় কর্মকান্ডে নয়, গলফ টুর্নামেন্টের অতিথি হয়ে।