বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০১৯ ৬ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

তারকারা যেভাবে কাটাবেন ঈদ

বর্ণাঢ্য ঈদ আয়োজনে আনন্দে মুখর সারা দেশ। শোবিজ অঙ্গনের মানুষরা যদিও তাদের কাজ দিয়ে সবাইকে বিনোদন দেন তারপরেও তাদের জীবনে ঈদ নিয়ে আসে বর্ণিল আনন্দ। এই খুশির বারতা কীভাবে তাদের মাঝে আনন্দ উৎসবের ছোঁয়া আনে তাই জানতে মুখোমুখি হয়েছি কয়েকজন তারকার। তাদের আনন্দ অনুভূতির কথা এখানে তুলে ধরা হলো-

ঈদে ঢাকায় নিজের ছবি দেখব : শাকিব

ঢাকাতেই বেশিরভাগ ঈদ করা হয়। অনেক সময় শুটিংয়ের জন্য বিদেশেও থাকতে হয়। তবে এবার অবশ্যই ঢাকাতেই ঈদ করব। প্রতি বছর ঈদে আমার ছবি মুক্তি পায়। এবার আনন্দটা একটু বেশি কারণ ঈদে নিজের প্রযোজিত ও অভিনীত ছবি ‘পাসওয়ার্ড’ মুক্তি পাচ্ছে। বিকালে সিনেমা হলে গিয়ে দর্শকের সঙ্গে আমার ‘পাসওয়ার্ড’ ছবিটি দেখব।

জয়কে নিয়ে আনন্দ শেয়ার করব : অপু

ঈদে ঢাকাতেই থাকব। মা আর একমাত্র আদরের দুলাল জয়কে নিয়ে আনন্দ করে দিনটি কাটাব। জয় এখন তার মায়ের মানে আমার সঙ্গ খুব ফিল এবং মিস করে। বিকালে তাকে নিয়ে মজা করে ঘুরে বেড়াব। ইতিমধ্যে জয়ের জন্য প্রচুর শপিং করা হয়ে গেছে। আজ কালের মধ্যেই সেরে নেব। তাছাড়া বাসায় মজার সব রান্না করব। স্বজনদের নিয়ে মজা করে ঈদ পালন করব।

গ্রামের বাড়িতেই ঈদ করব : ফেরদৌস ওয়াহিদ

প্রতিবারের মতো এবারও গ্রামের বাড়ি বিক্রমপুরে ঈদ করতে যাব। সেখানে পাড়া প্রতিবেশী আত্মীয়-স্বজনদের নিয়ে ঈদের নামাজ আদায় করব। তারপর সবার বাসায় যাব, আমার বাসাতেও সবাই আসবে। সবাইকে নিয়ে খুব আনন্দ করব। রাতে ঢাকায় ফিরে আসব। পুত্র হাবিবের বাসায় ওর সঙ্গে খাওয়া দাওয়া করব, টিভিতে ঈদ প্রোগ্রাম দেখব।

বাবাকে ছাড়া প্রথম ঈদ করব : ববি

ঈদে মুক্তি পাচ্ছে আমার নোলক ছবিটি। তাই সেই দিনটি নোলক নিয়েই ব্যস্ত থাকব। বেশ কয়েকটি প্রেক্ষাগৃহে যাওয়ার পরিকল্পনা আছে। এ ছাড়া এবারই প্রথম বাবাকে ছাড়া ঈদ করব। ছোট বেলা থেকে কখনই তাকে ছাড়া ঈদ করিনি। তাই ঈদ আনন্দেও মন খারাপ আমার। ঈদে মায়ের হাতের মুরগির রোস্ট বরাবরই পছন্দ করি।

নিজ হাতে বিশেষ কিছু রান্না করব : বুবলী

ঈদের দিনটা পরিবারের সঙ্গে কাটাতেই পছন্দ করি। ঈদে যেহেতু মুক্তি পাচ্ছে ‘পাসওয়ার্ড’ ছবিটি তাই কয়েকটি প্রেক্ষাগৃহে যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। গত বেশ কয়েকটি ঈদ এভাবেই কেটেছে আমার। এ ছাড়া এ দিনটিতে আমি নিজ হাতে বিশেষ কিছু রান্না করি। এবারও রান্নার ইচ্ছা রয়েছে। তবে গরুর মাংসের কালো ভুনা আমার পছন্দের শীর্ষে থাকে।

মা-বাবাকে সময় দেব : সিয়াম

প্ল্যান অনেক জটিল! ‘শান’ ছবির শুটিং করছি; ঈদের পরে শুটিং শুরু হবে। এই দিনে ঘোরাঘুরিই বেশি হবে। রাজারবাগ ঈদগাহে নামাজ পড়ব। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাসায় মা-বাবাকে সময় দেব। মায়ের হাতে পছন্দের খিচুড়ি, ডিম ভুনা, আচার ও বেগুনভাজি খাব। এরপর বিকালে স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুরবাড়ি যাব আর রাতে বন্ধুদের সময় দেব।

বাড়ির সবার জন্য রান্না করব : সারিকা

ঈদের আগের দিন পর্যন্ত শুটিং থাকবে। কিছুদিন আগে তুহিন হোসেনের ‘অন্যদিন’ করলাম; ঈদের দিন বাংলাভিশনে রাত ৮টায় প্রচার হবে। একই নির্মাতার আরও দুটি নাটক-‘চুল তার কবেকার’ ও ‘প্রোর্টেট’ করেছি। আর ঈদের দিনটা বেবি এবং আব্বু-আম্মুর সঙ্গেই কাটবে। এবার আম্মু বাসার সব খাবার রান্না করার দায়িত্ব দিয়েছেন। বিকালে বাচ্চাকে নিয়ে ঘুরব।

মায়ের সঙ্গে রান্না করব : পূজাচেরী

এখনো তো তেমন করে প্ল্যান করা হয়নি। শান মুভির শুটিং চলছে; ঈদের পরেও হবে। তবে গতানুগতিকভাবে যেভাবে ঈদ কাটাই সেভাবেই কাটাব মায়ের সঙ্গে। আম্মু রান্না করবেন, আমি একটু খুন্তি নাড়াব আর কী! মজার মজার খাবার খাব। বাসায় ফ্রেন্ডরা আসবে, আমি তাদের বাসায় যাব। আর ঈদের ছবি ‘নোলক’, পাসওয়ার্ড দেখার ইচ্ছে আছে। এরপর আড্ডা তো আছেই।