সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ৮ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

তৃতীয় দিন শেষে ৩৭৪ রানের লিড আফগানদের

চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ইনিংস থেকে ১৩৭ রানের বড় লিড পায় আফগানিস্তান। দ্বিতীয় ইনিংসে তাই ঘুরে দাঁড়াতো হতো সাকিবদের। প্রথম ওভারেই কাজটা দুর্দান্তভাবে করেন অধিনায়ক সাকিব। তুলে নেন এহসানউল্লাহ ও রহমত শাহকে। তবে ধাক্কা সামলে নেয় আফগানরা। তৃতীয় দিন শেষে আফগানিস্তান ৮৩.৪ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৩৭ রান তুলেছে। লিড নিয়েছে ৩৭৪ রানের। চতুর্থ দিন লিড বাড়িয়ে নিতে ব্যাট করবেন তারা। আফসার জাজাই ৩৪ রানে দিন শুরু করবেন। তার সঙ্গে নামবেন ইয়ামিন আহমেদজাই। ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান ৮৭ রানে আউট হয়েছেন। আসগার আফগান ৫০ করে ফিরেছেন। আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি করা রহমত শাহ গোল্ডেন ডাক মেরে ফিরেছেন। এহসানউল্লাহ করেন ৪ রান। পরে হাসমতউল্লাহ নাঈমের বলে ১২ রানে ক্যাচ দেন। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে চতুর্থ উইকেটে আড়াই রান চেজ করে জেতা বড্ড কঠিন। ম্যাচ তাই আফগানদের পক্ষে চলে গেছে বলা যায়।

এর আগে প্রথম ইনিংসে আফগানিস্তান ৩৪২ রানের বড় সংগ্রহ পায়। দলের হয়ে সেঞ্চুরি করেন রহমত শাহ। তিনি খেলেন ১০২ রানের ইনিংস। আসগর আফগান খেলেন ৯২ রানের ইনিংস। এছাড়া রশিদ খান ফিফটি করে। জবাবে প্রথম ইনিংসে ২০৫ রানে থামে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংস থেকে বড় লিড পেয়ে যায় আফগানিস্তান। বাংলাদেশের হয়ে ব্যাট হাতে ৪৮ রানে অপরাজিত থাকেন মোসাদ্দেক হোসেন। সঙ্গীর অভাবে ফিফটি করতে পারেননি আগের দিন ৪৪ রানে অপরাজিত থাকা মোসাদ্দেক। তাইজুল ১৪ রানেই ফেরেন। নাঈম আউট হন ৭ রানে। আগের দিন ১৯৪ রানে শেষ করা বাংলাদেশ তাই বেশি আর এগুতো পারেনি। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৫২ রান করেন মুমিনুল হক। এছাড়া লিটন দাস ৩৩ রান করেন। প্রথম ইনিংসে আফগানিস্তানের হয়ে পাঁচ উইকেট নেন রশিদ খান। তিন উইকেট নেন মোহাম্মদ নবি। বাংলাদেশের হয়ে প্রথম ইনিংসে চার উইকেট নেন তাইজুল ইসলাম। দুটি করে উইকেট নেন সাকিব আল হাসান ও নাঈম হাসান।