মঙ্গলবার ১২ নভেম্বর ২০১৯ ২৮শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

তেঁতুল কেন খাবেন

তেঁতুলের নাম শুনলেই জিভে পানি এসে যায়। ছোটবেলায় লুকিয়ে আচার চুরির কথা মনে পড়ছে? বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সেসব অতীত। তেঁতুলের যেমন অনেক গুণ আছে তেমনি কিছু ক্ষেত্রে অপকারীও। সেগুলো কী কী? আগে উপকারের কথাই জানুন। ওবেসিটি কমিয়ে ঝরঝরে রাখে আপনাকে। হৃদস্পন্দন নিয়মিত রেখে হৃদরোগ হওয়ার সম্ভাবনাও কমায়। রোজ পাতে একটু তেঁতুল মানেই রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা অনেকটাই বেড়ে যাওয়া। আরও গুণ আছে।

কেন খাবেন তেঁতুল

ভিটামিন সি, ই, বি ছাড়াও তেঁতুলে পাবেন ক্যালসিয়াম, আয়রন, ফসফরাস, পটাশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ আর ফাইবার। আর রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। সব মিলিয়ে মঙ্গল হবে আপনার স্বাস্থ্যের। 

১. ওবেসিটি ঝরবে: তন্বী হতে তেঁতুলের শরণ নিতেই পারেন। এর মধ্যে থাকা হাইড্রোসিট্রিক অ্যাসিড শরীর থেকে ফ্যাট ঝরাতে সাহায্য করে।  

২. ক্যান্সার হ্যাজ অ্যানসার:

ক্যান্সার রোধে তেঁতুল অপ্রতিরোধ্য। এর মধ্যে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট আর টার্টারিক অ্যাসিড প্রচুর রয়েছে। যা ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধিতে বাধা দেয়। 

৩. সুগার বশে থাকে:

সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রেখে ডায়াবেটিস কমায়। কার্বোহাইড্রেট তৈরি হতে দেয় না রক্তে। এর জন্য সকালে খালিপেটে তেঁতুলের রস খেতে পারেন সুগারের রোগীরা।

৪. লিভার ভালো রাখে:

তেঁতুলের গুণে লিভারের সমস্ত সমস্যা গায়েব। হজম হয় দ্রুত। ওজন ঝরে ঝটপট।

৫. ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে:

এর মধ্যে থাকা আয়রন আর পটাশিয়াম লোহিত রক্ত কণিকার পরিমাণ বাড়িয়ে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে।  

৬. বিছে কামড়ালে তেঁতুলের প্রলেপ:

বিছে কামড়ানোর ব্যথা-জ্বালা কমায় তেঁতুলের রস।

বেশি খেলে সমস্যা হয়:

১. তেঁতুল টক ফল হওয়ায় বেশি খেলে অ্যাসিডিটি বাড়ে।

২. বেশি তেঁতুল খেলে ঋতুস্রাবের পরিমাণ বেড়ে যায়। বৃদ্ধি পায় রক্ত সঞ্চালনের গতিও। এতে শরীরে রক্তের ঘাটতি দেখা দেয়। রক্ত সঞ্চালনের বেগ বেড়ে গেলে শরীরের পক্ষে তা অত্যন্ত ক্ষতিকর। 

৩. গর্ভধারণেও তেঁতুলের ভূমিকা রয়েছে। অতিরিক্ত তেঁতুল খেলে গর্ভপাতের আশংকা থেকে যায়।

৪. বেশি তেঁতুল খাওয়া মানেই চর্মরোগ, ত্বক কালচে হয়ে যায়, কালচে ছোপ ধরে, ব্রণ-ফুসকুড়ির হামলা বাড়ে। ত্বকের ঔজ্জ্বল্য কমে।

৫. শরীরে গ্লুকোজের মাত্রা বেশি কমে যাওয়াটাও ভালো না। তাই চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ডায়াবেটিকরা তেঁতুল খাবেন।

৬. কিছু ওষুধের সঙ্গে তেঁতুল একেবারেই চলে না। কিছু ওষুধ খাওয়ার আগে বা পরে তেঁতুল খেলে ওষুধের কার্যক্ষমতা নষ্ট হয়। তাই অসুস্থ ব্যক্তির ডাক্তারের পরামর্শ মেনে তেঁতুল খাওয়া উচিত।