রবিবার ৯ অগাস্ট ২০২০ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন

এম. আর. মিজান ॥ ই-পাসপোর্ট অত্যন্ত নিরাপত্তা সম্বলিত একটি ব্যবস্থা। যে কারনে বিশ্বের বেশির ভাগ দেশ এখন ই-পাসপোর্ট ব্যবহার শুরু করেছে। বিশ্বের ১১৯টি দেশের মতো আমরাও ১২০ নম্বরে যুক্ত হলাম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে এবং কর্ম তৎপরতায় আমরা এ যাত্রা শুরু করতে পারলাম। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রীর পুত্র ও আইটি উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয়ের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এতে আমরা সফল হয়েছি। খুব শীঘ্রই ই-পাসপোর্ট সেবা কার্যক্রম মানুষের দোরগড়ায় পৌছাবে। সেজন্য আমরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি। এখন ই-পাসপোর্ট সম্পর্কে মানুষ না বুঝলেও ভবিষ্যতে এটি সবাই বুঝতে পারবে এবং এর সুফল সবাই ভোগ করবে। যারা এটি এখনও বুঝেন না, তাদের জন্য সুন্দর উদাহরন হলো- ব্যাংকের চেক বই এবং এটিএম কার্ড। চেক বইয়ে স্বাক্ষর দিয়ে ব্যাংক কর্মকর্তা ওই স্বাক্ষর যাচাইয়ের মাধ্যমে টাকা প্রদান করেন। আর এটিএম কার্ডে তা প্রয়োজন হয় না। সহজেই টাকা উত্তোলন করা যায়। কিছুটা সেরকমই আমাদের ই-পাসপোর্ট। তবে এর মধ্যে একটা চিপ থাকবে। যাতে আপনার সমস্ত ডাটা অন্তর্ভূক্ত থাকবে। এটি পলিমারের তৈরী একটি কার্ড। ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম সকলের নিকট পৌছে দিতে আমাদের সকলকে ঐকান্তিকভাবে কাজ করতে হবে।

১৫ জুলাই বুধবার সকালে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের ই-পাসপোর্ট ও সয়ংক্রিয় বর্ডার নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক উইং কমান্ডার মোঃ রকিবুল হাসান পিএসসি ইঞ্জি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। দিনাজপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের আয়োজনে তাদের নিজস্ব মিলনায়তনে দিনাজপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক মরিয়ম খাতুনের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরূপ বকশী বাচ্চু, দিনাজপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের উপ-সহকারী পরিচালক মোঃ বিল্লাল হোসেন, ই-পাসপোর্টের প্রজেক্ট ম্যানেজার মোঃ মারুফ আলম প্রমুখ। সভায় বিভিন্ন স্তরের গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গসহ নানা শ্রেণী-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email