মঙ্গলবার ২৩ অক্টোবর ২০১৮ ৮ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে কনকনে শীতে গরীব ও মধ্যবিত্ত পরিবারের মাঝে রুস্তম এন্টার প্রাইজের শীতবস্ত্র বিতরন

মোঃ দেলোয়ার হোসেন, দিনাজপুর ॥ দিনাজপুরে হিমেল বাতাস, কুয়াশা ও কনকনে শীত মানুষের সয্যের বাঁধ ভেঙ্গে দিয়েছে। ছিন্নমূল মানুষ শীতবস্ত্র সংগ্রহ করে শীত নিবারনের চেষ্টা চালাচ্ছে। তবে বিপদগ্রস্থ হয়ে পড়েছে মধ্যবিত্ত ও অভাবী সম্ভ্রান্ত পরিবারের মানুষ। এ মুহূর্তে শীতের এ আক্রমনকে প্রতিহত করতে আত্মমানবতার সেবার প্রত্যয় নিয়ে শীতবস্ত্র বিতরনে নেমে পড়েছেন দিনাজপুর রুস্তম এন্টার প্রাইজের সত্বাধীকারী ও দৈনিক অন্তরকন্ঠের সম্পাদক আলহাজ্ব রুস্তম আলী। তিনি প্রতিবারের ন্যায় এবারও দিনাজপুরে সাম্প্রতিককালে ভয়াবহ বন্যায় সর্বশান্তদের শীত নিবারনে কম্বল, চাদরসহ শীতবস্ত্র বিতরন শুরু করেছেন। ইতিমধ্যে কয়েকশ পরিবারের মাঝে ১ হাজারের অধিক শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন।
রোববার দিনাজপুর একাডেমী হাইস্কুল মাঠে শীতবস্ত্র বিতরনকালে আলহাজ্ব রুস্তম আলী বলেন, সমাজে কিছু মধ্যবিত্ত ও সম্ভ্রান্ত পরিবারের অভাবী পরিবার রয়েছেন। যারা লাইনে দাড়িয়ে  শীতবস্ত্র ও রিলিফ সংগ্রহ করতে পারেন না। এ সব মানুষকে কুড়িয়ে কুড়িয়ে আঘাত করে অভাব। চেপে বসে কনকনে শীতের মত অভিশাপ। আত্মমানবতার সেবায় এগিয়ে আসতে হবে দানশীল ও মধ্যবিত্ত মানুষদের। তিনি বলেন, সাম্প্রতিককালের বন্যায় আশ্রয়হীন ১৪০টি পরিবারকে নিজ অর্থে বাড়ি তৈরী করে দিয়েছি। বন্যা ও কনকনে শীতে সরকার শীতবস্ত্র ও ত্রান সামগ্রী বিতরন করলেও সবার ভাগ্যে জোটেনি। জেলা ত্রান ও পুর্ণবাসন কর্মকর্তা মোখলেছুর রহমান জানান, জেলায় এযাবত প্রায় ৮০ হাজার কম্বল ও ৩ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরন হয়েছে। কিন্তু বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, শীতে আক্রান্ত মানুষের জনসংখ্যা প্রায় ৬ লক্ষাধিক। সরকারের পাশাপাশি আত্মমানবতার সেবায় এগিয়ে না আসলে এই কনকনে শীতের আক্রমন থেকে শীর্তাত মানুষদের রক্ষা করা খুব কঠিন হয়ে পড়বে। তাই শীর্তাত মানুষের জন্য আত্মমানবতার সেবায় এগিয়ে আসা সকলের প্রয়োজন।