বুধবার ৩ জুন ২০২০ ২০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় ৬১ হাজার ৪৯৮ শিক্ষার্থী অংশগ্রহন করবে

দিনাজপুরে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় ৬১ হাজার ৪৯৮ শিক্ষার্থী অংশগ্রহন করবে

দিনাজপুর প্রতিনিধি: ২০ নভেম্বর বুধবার থেকে শুরম্ন হচ্ছে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা। দিনাজপুর জেলায় ৬১ হাজার ৪৯৮ জন ছাত্র-ছাত্রী এ পরীক্ষায় অংশগ্রহন করবে।

দিনাজপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সুত্রে জানা গেছে, চলতি ২০১৩ সালের প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় দিনাজপুর জেলার ১৩ উপজেলা হতে ৬১ হাজার ৪৯৮ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহন করবে। এর মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় (পিএসসি) ৫৬ হাজার ২৩১ জন শিক্ষার্থী এবং ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় ৫ হাজার ২৬৭ শিক্ষার্থী অংশগ্রহন করবে। জেলার ১৩ উপজেলায় ১৩২টি কেন্দ্রের মাধ্যমে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

উপজেলা ভিত্তিক পরীক্ষার্থীঃ কাহারোল উপজেলার ৬টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ৩ হাজার ৩০ জন এবং ইবতেদায়ীতে ২০৫ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহন করবে। খানসামা উপজেলার ৬টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ৪ হাজার ২৫৮ জন এবং ইবতেদায়ীতে ৩০৩ জন পরীক্ষার্থী, ঘোড়াঘাট উপজেলার ৫টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ২ হাজার ২০৫ জন এবং ইবতেদায়ীতে ৩০১ জন পরীক্ষার্থী, চিরিরবন্দর উপজেলার ১৬টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ৫ হাজার ৯১২ জন এবং ইবতেদায়ীতে ৪১৭ জন পরীক্ষার্থী, সদর উপজেলার ১৫টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ৭ হাজার ৮৫১ জন এবং ইবতেদায়ীতে ৭৪৭ জন পরীক্ষার্থী, নবাবগঞ্জ উপজেলার ১০টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ৪ হাজার ২৪০ জন এবং ইবতেদায়ীতে ৫৪৮ জন পরীক্ষার্থী, পার্বতীপুর উপজেলার ২১টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ৬ হাজার ৭৪৮ জন এবং ইবতেদায়ীতে ৭০৭ জন পরীক্ষার্থী, ফুলবাড়ী উপজেলার ১০টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ৩ হাজার ১৬৭ জন এবং ইবতেদায়ীতে ৩৩৭ জন পরীক্ষার্থী, বিরল উপজেলার ১১টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ৪ হাজার ৮৭৮ জন এবং ইবতেদায়ীতে ৩৭০ জন পরীক্ষার্থী, বিরামপুর উপজেলার ৮টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ২ হাজার ৮৫৮ জন এবং ইবতেদায়ীতে ৩৭৩ জন পরীক্ষার্থী, বীরগঞ্জ উপজেলার ১৩টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ৬ হাজার ৪৫৬ জন এবং ইবতেদায়ীতে ৪৮০ জন পরীক্ষার্থী, বোচাগঞ্জ উপজেলার ৭টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ৩ হাজার ২৪ জন এবং ইবতেদায়ীতে ১৯৮ জন পরীক্ষার্থী এবং হাকিমপুর উপজেলার ৪টি কেন্দ্রে প্রাথমিকে ১ হাজার ৬০৪ জন এবং ইবতেদায়ীতে ২৮১ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহন করবে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস জানায়, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে পরীক্ষা অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে ইতোমধ্যে যাবতীয় প্রস্ত্ততি সম্পন্ন করা হয়েছে। হরতালের মত কোন রাজনৈতিক কর্মসূচী না থাকলে নির্ধারিত সময়ে পরীক্ষা শুরু এবং শেষ হবে বলে জানায় দিনাজপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস কর্তৃপক্ষ।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email