শনিবার ৪ জুলাই ২০২০ ২০শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে মস্তিস্ক বিকৃত সুফি ৩ বছর ধরে শিকল বন্দি

আব্দুর রাজ্জাক, দিনাজপুর ॥ দিনাজপুর শহরের কসবা ফকিরপাড়া এলাকায় মস্তিস্ক বিকৃত সুফি প্রায় তিন বছর ধরে শিকল বন্দি। শিকল ছাড়া হলেই প্রতিনিয়ত শ্লীলতাহীনতার শিকার হচ্ছে স্থানীয় মেয়েরা। শিকলে বেঁধে রাখা হলেও সুস্থ করতে পরিবারের উদ্যোগ নেই বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, প্রায় তিন বছর পূর্বে লেখাপড়া চলাকালীন হঠাৎ করেই সুফির আচরণ-ব্যবহারে পরিবর্তন দেখা যায়। তারপরেই পাগলের মতো আচরণ করতে থাকে ছেলেটি। এলাকাবাসীর সাথে মুখের ভাষা খারাপ প্রয়োগ করতে থাকলে তার পরিবারকে বিষয়টি জানালে ঘরের শয়নকক্ষে নজর বন্দি করে রাখে। এমনকি ঘরের জানালা দিয়ে রাস্তায় যাতায়াতরত মেয়েদের উত্তক্ত করে বেশি। আর বাড়ির বাইরে এলেই এলাকার মা-বোনদের ওড়না, শাড়ীর আচল টানে। মাঝে মধ্যে হাতে যা পায় তাই দিয়ে ঢিল ছোড়ে এলাকার নারীদের। শুধু নারীরাই নয়, রেহাই পায় না এলাকার কিশোর থেকে শুরু করে পুরুষেরাও। ভালো চিকিৎসা পেলেই ছেলেটি সুস্থ হতে পারে মর্মে পরিবারকে চাপ প্রয়োগ করেও কোন সুফল পায়নি পরিবার থেকে। এতে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে গেছে বলে জানান সুফির অত্যাচারের শিকার মুক্তা, শাহানাজ, বাচ্চু, সাগর, নুর ইসলামসহ অনেকেই।

সুফির বাবা শাজাহান আহমেদ ও মাতা হাবিবা সুলতানা বলেন, আমাদের দুই সন্তানের বড় সুফি ছাত্র হিসেবে খুব ভালো ছিলো। ২০১৪ সালে এইচএসসি পাসের পর থেকে হঠাৎ করেই তার মাথায় সমস্যা দেখা দেয়। এলাকাবাসীর অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে তারা বলেন, আমরা হোমিও চিকিৎসা করে সুফির অনেকটা সুস্থতা বোধ করছি। কিন্তু পুরোপুরি সুস্থতায় সময় লাগবে বলে তারা জানিয়েছেন।

দিনাজপুর পৌরসভার স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আশরাফুল আলম রমজান বলেন, এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে কয়েকবার বলার পরও সুফির সুস্থ্যতায় তাকে হাসপাতালে রেখে চিকিৎসার ব্যবস্থা করছেন না তার পরিবার। এতে নিজেরা যেমন কষ্ট পাচ্ছেন তেমনি শ্লীলতাহীনতার মতো ঘটনায় আতংকে এলাকার কিশোরী, তরুণী, যুবতীসহ এমনিক বয়স্ক নারীরাও।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email