শনিবার ৩০ মে ২০২০ ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে যক্ষ্মা বিষয়ক মতবিনিময় সভা

কাশী কুমার দাস, স্টাফ রিপোর্টার ॥ ১১ সেপ্টেম্বর বুধবার মহারাজা গিরিজানাথ উচ্চ বিদ্যালয়ের সভা কক্ষে বাংলাদেশ জাতীয় যক্ষ্মা নিরোধ সমিতি (নাটাব) আয়োজিত যক্ষ্মা রোগ প্রতিরোধ সুশীল সমাজের করণীয় শীর্ষক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি সদর উপজেলার সাধারণ সম্পাদক মাসউদ আলম-এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডাঃ পারভেজ সোহেল রানা। বিশেস অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জুবলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আকরাম হোসেন বাবলু,। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা নাটাব এর সাধারণ সম্পাদক কাশী কুমার দাস। মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন সহকারী শিক্ষক সিয়াব উদ্দিন, মো. শাহজাহান, প্রবিতা রায়।

প্রধান অতিথি দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডাঃ পারভেজ সোহেল রানা বলেন, কুসংস্কার অজ্ঞতায় যক্ষ্মা রোগ প্রতিরোধে প্রধান অন্তরায়। যক্ষ্মা একটি জীবাণু ঘটিত সংক্রামক রোগ। এক নাগারে দুই সপ্তাহ বা তার অধিক সময় ধরে কাশি থাকলে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যেতে হবে। রোগ সনাক্ত হলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে। নিয়মিত সঠিক মাত্রায় ও নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত ওষুধ সেবনের মাধ্যমে যক্ষ্মা রোগ সম্পূর্ণ ভালো হয়। যক্ষ্মা মুক্ত দেশ গড়তে শিক্ষকদের যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে। ঢাকা নাটাব কার্যালয় হতে আগত রংপুর বিভাগীয় প্রতিনিধি কাওছার উদ্দীন তার বক্তব্যে বলেন, ২০১৭ সালে সকল প্রকার যক্ষ্মা রোগীর অনুমিত সংখ্যা হলো ৩ হাজার ৬৪ জন। ২০১৮ সালের সকল প্রকার সনাক্তকৃত যক্ষ্মা রোগীর সংখ্যা ২ লাখ ৬৭ হাজার ২শত ৭৬ জন। ২০১৭ সালে যক্ষ্মায় মৃত্যুর অনুমিত সংখ্যা ৫৯ হাজার। ২০১৭ সালে নুতন এমডিআর টিবি রোগীর অনুমিত সংখ্যা ৫ হাজার ৮শত।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email