মঙ্গলবার ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ ৪ঠা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে যৌন নিপীড়ন ও ধর্ষণ ঘটনা প্রতিরোধে তৃণমূলে সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক সভা

দিনাজপুর প্রতিনিধি : সারা বিশ্বে প্রতি বছর ২৫ নভেম্বর থেকে  ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত আর্ন্তজাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বিশ্ব মানবাধিকার দিবস পলিত হয়ে থাকে। ”ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়ন মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ” এই শোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, দিনাজপুর জেলা শাখা আর্ন্তজাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ’২০১৮ ও বিশ্ব মানবাধিকার দিবস উপলক্ষ্যে ২ ডিসেম্বর’১৮ তারিখ বিকাল ৩টায় গোলাপবাগ এলাকায় যৌন নিপীড়ন ও ধর্ষণ ঘটনা প্রতিরোধে তৃণমূলে সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক সভার অয়োজন করে। উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন গোলাপবাগ পাড়া কমিটির সভাপতি জাহেদা সভায় উপস্থিত ছিলেন, মহিলা পরিষদ, দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি কানিজ রহমান, সহ-সভাপতি মিনতি ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক ড.মারুফা বেগম,সহ- সাধারণ সম্পাদক মনোয়ারাসানু,অর্থ সম্পাদক রতœা মিত্র, লিগ্যাল এইড সম্পাদক জিন্নুরাইন পারু।

বর্তমান সময়ে সমাজের ভেতরে মূল্যবোধের অবক্ষয়,নারীর প্রতি সহিংসতা বিশেষ করে শিশু ও তরুণী নারীদের যৌন হয়রানি,ধর্ষণ,গণধর্ষণের পর হত্যা, এসিড নিক্ষেপ ,যৌতুকের কারণে পুড়িয়ে হত্যা,নারী-শিশু পাচার,পর্ণোগ্রফির মত জঘন্য ঘটনা অহরহ ঘটছে। এর ফলে নারী আন্দোলন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে,নারীর অগ্রগতি ব্যাহত হচ্ছে। নিরাপত্তাহীনতা, নারীর স্বাধীন চলাচল ও উন্নয়নের ধারার গতি ক্রমান্বয়ে সংকুচিত হয়ে পড়ছে। যা উদ্বেগের সৃষ্টি  করেছে। ধর্ষণ মানবতা বিরোধী একটি অপরাধ। নারী ও কন্যাশিশুরা সামাজিক,অর্থনৈতিক,ও রাজনৈতিক বিভিন্ন দ্বন্দ্বের কারনে ধর্ষণের শিকার হয়ে থাকে।

বর্তমানে সমাজ উন্নয়নে নারীরা- পারিবারিক,সমাজিক,সাংস্কৃতিক,পেশাগত দায়িত্ব এবং রাজনীতি ও অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।

এ ধরনের পরিস্থিতিতে নারী ও কন্যাশিশুর প্রতি সকল প্রকার নির্যাতন প্রতিরোধ ও নির্মূল করতে হলে নারী-পুরুষ সম্মিলিতভাবে এর বিরুদ্ধে কার্যকর আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। সমাজের সকল স্তরে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ও নারী-পুরুষের সমতার সংস্কৃতি গড়ে তুলতে হবে। পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রকে নারী নির্যাতন বিরোধী দৃষ্টিভঙ্গি, মানবিক সংস্কৃতি গ্রহণ করতে হবে। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন গোলাপবাগ পাড়া কমিটির সাধারণ সম্পাদক গোলেনুর বেগম।