শনিবার ১১ জুলাই ২০২০ ২৭শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুরে ৩ দিনব্যাপী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত

মোঃ ইউসুফ আলী : ২১ থেকে ২৩ জানুয়ারী দিনাজপুর জিলা স্কুলে ৩ দিনব্যাপী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা-২০১৫ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রোগ্রামের আওতায় দিনাজপুর জেলা তথ্য অফিসের আয়োজনে এবং জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় দিনাজপুরের আঞ্চলিক ও জাতীয় দৈনিক পত্রিকা এবং ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকদের সাথে প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়।

২০ জানুয়ারী মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩ টায় দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে-১ (কাঞ্চন) এ আয়োজিত এ প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক আহমদ শামীম আল রাজী। বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ তৌফিক ইমাম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ তৌহিদুল ইসলাম, সিনিয়র জেলা তথ্য অফিসার আবুল কালাম মোহাম্মদ শামসুদ্দিন, সহকারী জেলা তথ্য অফিসার মোঃ আবুবকর সিদ্দীক।

প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠানে মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন বাসস প্রতিনিধি রুস্তম আলী মন্ডল, দৈনিক উত্তর বাংলার বার্তা সম্পাদক শাহাদৎ হোসেন শাহ্, দৈনিক আমাদের সময় প্রতিনিধি রতন সিং, দৈনিক খবরপত্রের প্রতিনিধি মনসুর রহমান, দৈনিক জনতা প্রতিনিধি শামীম রেজা, দেশ টিভির প্রতিনিধি আবুল কাশেম।

২১ থেকে ২৩ জানুয়ারী দিনাজপুর জিলা স্কুলে ৩ দিনব্যাপী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা-২০১৫ উপলক্ষে প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক আহমদ শামীম আল রাজী তাঁর লিখিত বক্তব্যে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ১২ জানুয়ারী’১৪ ইং তৃতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন। ২০০৮ সালে ৯ম জাতীয় সংসদে নির্বাচনের পূর্বে টেলিভিশন বক্তৃতায় তিনি প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলে বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশে পরিণত করার ঘোষণা দেন এবং স্বাধীনতা সুবর্ণ জয়ন্তীতে বাংলাদেশকে একটি মধ্য আয়ের দেশে পরিণত করার লক্ষ্যে ভিশন-২০২১ ঘোষণা করেন। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনের পূর্বে তিনি ২০৪১ সালে বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশে পরিণত করার জন্য ভিশন-২০৪১ ঘোষণা করেন। ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারী দায়িত্বভার গ্রহণের পর হতে অদ্যাবধি প্রায় ৬ বছর যাবত ধারাবাহিকভাবে ‘দিন বদলের সনদঃ ভিশন-২০২১ বাস্তবায়নের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য নেতৃত্বে সরকার বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে ব্যাপক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত আছে। ‘জনগণের দোরগোড়ায় সেবা’ এ মূলমন্ত্রকে সামনে রেখে ‘স্বল্প খরচে, স্বল্প সময়ে ও কম ভ্রমণে’ তৃণমূল জনগণকে সেবা প্রদানের লক্ষ্যে দেশীয় প্রেক্ষাপটে সীমিত সময়ে, সীমিত সম্পদ কাজে লাগিয়ে বর্তমান সরকার নানাবিধ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করেছে ও করছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ আজ কোন স্বপ্ন নয়, একটি অনিবার্য বাস্তবতার নাম।

তিনি আরো বলেন, ‘স্বল্প খরচে, স্বল্প সময়ে ও কম ভ্রমণে’ তৃণমূল জনগণকে সেবা প্রদানের লক্ষ্যে দেশীয় প্রেক্ষাপটে বাস্তবায়নযোগ্য আরও উদ্ভাবনী প্রস্তাবনা পাওয়ার জন্য ইউনিয়ন, উপজেলা, জেলা, বিভাগ ও জাতীয় পর্যায়ে ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা আয়োজন করা হচ্ছে। ২১-২৩ জানুয়ারী দিনাজপুর জিলা স্কুলে আয়োজিত ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা-২০১৫ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামের আওতায় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকদের দিনাজপুর জেলায় ই-সেবা কার্যক্রম ও ডিজিটাল উদ্ভাবনী আইডিয়া সমূহ সম্পর্কে অবহিত করার জন্য আজকের এই আয়োজন।

এবারের মেলায় সরকারি-বেসরকারি মোট ৪৩টি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করছে। মেলার প্রথম দিন উদ্বোধনী অনুষ্ঠান, ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার ও মাল্টিমিডিয়া ক্লাশরুম বিষয়ক সেমিনার এবং জেলা তথ্য অফিসের ব্যবস্থাপনায় সংগীতানুষ্ঠান ও নাটক ‘স্বপ্নের ফেরীওয়ালা’ মঞ্চস্থ হবে। মেলার দ্বিতীয় দিন স্টুডেন্ট ইনোভেশন ক্যাম্পের চুড়ান্ত প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন নন্দিত কথা সাহিত্যিক অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবাল এবং অধ্যাপক ড. ইয়াসমিন হক বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। মেলার দ্বিতীয় দিন বারোয়ারী বিতর্ক প্রতিযোগিতা এবং সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান রয়েছে। মেলার সমাপনী দিনে ইনোভেশন বিষয়ক সেমিনার ও আইসিটি অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত হবে। সমাপনী ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসন) ও এটুআই প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক কবির বিন আনোয়ার। তিনদিনব্যাপী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলায় প্রতিদিন জেলা তথ্য অফিসের ব্যবস্থাপনায় ই-সেবা বিষয়ক চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email