শনিবার ১৮ অগাস্ট ২০১৮ ৩রা ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুর জেলা প্রশাসনকে আইনজীবীদের ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম

মোঃ ইউসুফ আলী ॥ আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে আইনজীবীদের বিরূদ্ধে জেলা প্রশাসনের দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না হলে কঠোর কর্মসূচী প্রদানের হুমকি দিয়েছে দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতি। সেই সাথে দিনাজপুরের কিছু পত্রিকায় “আইনজীবীদের হাতে কর্মচারী প্রহৃত” শীর্ষক প্রকাশিত খবরের তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। ২৫ মে’১৮ শুক্রবার দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. নুরুজ্জামান জাহানী ও সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. মোঃ তৌহিদুল ইসলাম সরকার স্বাক্ষরিত এক প্রতিবাদ লিপিতে একথা জানানো হয়।

প্রতিবাদ লিপিতে আইনজীবী নেতৃবৃন্দ বলেন, একটি ছোট্ট ঘটনাকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিশাল ঘটনায় রূপান্তর করার অপচেষ্টা আসলে দূরভিসন্ধিমূলক। যা সচেতন কোন মানুষের কাম্য নয়। একটি ভূল বুঝাবুঝি আলাপ-আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান সম্ভব থাকলেও জেলা প্রশাসন সম্পূর্ণ হটকারীমূলকভাবে বিজ্ঞ ৭ আইনজীবীর বিরূদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। শুধু তাই নয়, পত্রিকাগুলোতে অসত্য তথ্য পরিবেশন করে সংবাদ প্রকাশ করিয়েছে। আইনজীবীরা সমাজের সচেতন ব্যাক্তি হিসেবে কোন হটকারী কাজ করেনি। তার পরেও তাদের বিরূদ্ধে সংবাদ পরিবেশন করানোসহ মামলা দায়েরের মত কাজ করেছে জেলা প্রশাসন। বিষয়টিতে জেলার আইনজীবীরা ক্ষুব্ধ ও প্রতিবাদমূখর হয়ে উঠেছে। এমতাবস্থায় জেলা প্রশাসনকে এ ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে হবে। আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে তাদের দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে এবং আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করতে হবে। নচেৎ আইনজীবী সমিতি আগামীতে কঠোর কর্মসূচীর মাধ্যমে জেলা প্রশাসনের হটকারী সিদ্ধান্তের দাঁতভাঙ্গা জবাব দেবে। যা কখনই মঙ্গলজনক হতে পারে না। তাই সময়ক্ষেপন না করে অনতিবিলম্বে মামলা প্রত্যাহারসহ যাবতীয় সমস্যার সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ সমাধানে সংশ্লিষ্ট সকলের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন আইনজীবী নেতৃবৃন্দ। উল্লেখ্য, ২৪ মে’১৮ বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে ঘটে যাওয়া একটি ছোট্ট ঘটনার জেরে দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেটের গোপনীয় সহকারী মোঃ আমিনুর রহমান বাদী হয়ে ৭ আইনজীবির নাম উল্লেখ করে ২০০২ সালের দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা দায়ের করে। যার কোতয়ালী থানার মামলা নং নং-১৫৩, তাং-২৪-০৫-১৮ইং।