রবিবার ৯ অগাস্ট ২০২০ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুর জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের বর্তমান কমিটির অনিয়ম দুর্নীতির প্রতিবাদে কান্ত-সেলু-ফিরোজ পরিষদের সংবাদ সম্মেলন

মো. রফিকুল ইসলাম ফুলাল ॥ ১৩ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টায় দিনাজপুর প্রেসক্লাবে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কান্ত-সেলু-ফিরোজ পরিষদের নেতৃবৃন্দ এক সাংবাদিক সম্মেলনে ঘোষণা দিয়ে বলেন দিনাজপুর জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের বর্তমান কমিটির অনিয়ম দুর্নীতির কারণে আমরা নির্বাচন বয়কোট করছি। তিনি বলেন দিনাজপুর জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপ জেলার একটি ঐতিহ্যবাহি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান। আপনারা জানেন আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি দ্বি-বার্ষিক কার্যকরী কমিটির নির্বাচন ঘোষণা করা হয়েছে। এই নির্বাচন সাধারণ মালিকবৃন্দ আশা করেছিল নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু আমরা অবাক দৃষ্টিতে লক্ষ করছি যে, ভোটার তালিকা প্রস্তুত তৈরির ক্ষেত্রে নিরপেক্ষতা অবলম্বন করা হয়নি। এখানে উদ্দেশ্যমূলকভাবে বৈধ ভোটারকে বাদ দেয়া হয়েছে এবং অবৈধ ভোটারকে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

নিয়ম অনযায়ী নির্বাচন কমিশন বরাবর আপত্তি দাখিল করা হয়। কিন্তু অদৃশ্য কারণে তা কর্ণপাত করা হয়নি। অতপর বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য আপিল বোর্ডের নিকট আরজি পেশ করা হলে সেখানেও ন্যায় বিচার হতে বঞ্চিত হই। এদিকে নির্বাচন তফশিল মোতাবেক নির্ধারিত মনোয়নপত্র দাখিলের শেষ দিনে আমরা মনোনয়ন পত্র দাখিল করি এ আশায় যে, আমরা কমপক্ষে বিজ্ঞ আদালত কর্তৃক ন্যায় বিচার পাবো সে মোতাবেক বিধি অনুযায়ী আমরা এফসিসিসিআই ঢাকায় নির্ধারিত ফি জমাদান পূর্বক আরবিট্রেশন আবেদন করি এবং দিনাজপুরে বিজ্ঞ আদালতে ন্যায় বিচার প্রার্থনা পূর্বক আকটি মামলা দায়ের করি। কিন্তু নিয়ম অনুযায়ী আরবিট্রেশন এর মতামতের চিঠিটি অদৃশ্য কারণে শেষ মুহূর্ত আমাদের পক্ষে পাই। এদিকে আমাদের প্রতিপক্ষ চানুক্য নীতি অবলম্বন করে শেষ কার্যদিবস আদালত পরিবর্তন করে আমাদেরকে অসৎ উদ্দেশ্যে হয়রানি করে, যেন আমরা বিজ্ঞ আদালতে ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হই। এরপরেও যথাসাধ্য পরিস্থিতি মোকাবেলা করি। অবশেষে সময় স্বল্পতা হেতু বিজ্ঞ আদালত কর্তৃক কোন রকম নিস্পত্তি না পাওয়ায় আমরা নির্বাচন বয়কটে ঘোষণা প্রদান করছি। নির্বাচন নিরপেক্ষ করতে হলে পুনঃতপশীল ঘোষণা করে নতুন করে নির্বাচন করার অনুরোধ করছি।

সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন কান্তলাল সাহা, নজরুল ইসলাম সেলু, খন্দকার বেলাল হোসেন, আলতাফুর রহমান, ফিরোজ শাহ্, সাদেক আলী, মোকলেসুর রহমান, মোঃ ইব্রাহিম, আরিফুল আলম তুষার, সাদেক তানভীর মেহেদী, মিজানুর রহমান মিজান, শরিফুল ইসলাম ও সঞ্জয় কুমার সাহা।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email