শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুর ট্যাক্সেস্ বার অ্যাস্সোসিয়েশন এর প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন

রফিক প্লাবন, দিনাজপুর ॥- ২০১৯-২০২০ অর্থ আইনে প্রস্তাবিত আয়কর অধ্যাদেশের ১৭৪ (২) এর  (এফ) প্রোভাইসো প্রত্যাহার করার প্রস্তাবের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন কর্মসুচি পালন করেছে দিনাজপুর ট্যাক্সেস বার অ্যাসসোসিয়েশন।

১৯ জুন ২০১৯ বুধবার দুপুর ২ টায় শহরের নিমনগর বালুবাড়ীতে অবস্থিত কর ভবনে দিনাজপুর ট্যাক্সেস বার অ্যাসসোসিয়েশন এর আয়োজনে বারের সভাকক্ষে সভাপতি এ্যাড. ওয়াহিদুজ্জামান বুলবুল এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নকিবুল হক খান এর সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি জফুর উদ্দিন আহমেদ, এ্যাড. রফিকুল ইসলাম ঘুটু, সুব্রত মজুমদার ডলার, আশরাফুল হক বুই, মিজানুর রহমান, আবু সাঈদ বাবু, অনিল চন্দ্র রায়, আয়কর উপদেষ্টা প্রণয় রোজারিও, আতিকুর রহমান সুমন, মোল্লা মো. শাফায়েত হোসেন ও শাহ নেওয়াজ শুভ।

এর আগে ২০১৯-২০২০ অর্থ আইনে প্রস্তাবিত আয়কর অধ্যাদেশের ১৭৪ (২) এর  (এফ) প্রোভাইসো প্রত্যাহার করার প্রস্তাবের বিরুদ্ধে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন তারা।

প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন কর্মসূচিতে সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, কর পেশাকে নিয়ন্ত্রন ও সুরক্ষা প্রদানের লক্ষ্যে বার কাউন্সিলের আদলে অবিলম্বে নীতিমালা প্রণয়ন ও কর কাউন্সিল গঠন করতে হবে।

বক্তারা বলেন, ২০১৯-২০২০ অর্থ আইনে প্রস্তাবিত আয়কর বাটপাররা অবৈধভাবে প্রতিনিধিত্ব করবে। ফলশ্রুতিতে করদাতারা হয়রানি ও প্রতারণার শিকার হবেন। অন্যদিকে করদাতার প্রতিনিধি যিনি কোন ট্যাকসেস বারের সদস্য নন, রিটার্ন দাখিল ও আইনি সহায়তা প্রদানের ক্ষেত্রে ওকালতনামা বা আমমোক্তারানামা প্রদানে ঝামেলায় পড়বেন। কারণ আমমোক্তারনামা করার আইনি প্রক্রিয়া ব্যয় ও সময়সাপেক্ষ। এই ধারাটি বিলোপের ফলে অসাধু কর কর্মকর্তা-কর্মচারী অবৈধভাবে করদাতার সাথে লেনদেনের মাধ্যমে কেস রফাদফায় উৎসাহিত হবে। ফলে সরকার তার প্রকৃত রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হবে। সভায় উক্ত বিধানটি সরকারের রাজস্ব আহরণে এবং করদাতাকে প্রতারণা থেকে রক্ষা ও আইনি সেবা নিশ্বয়তার স্বার্থে পুনর্বহাল রাখার জন্য জোর দাবী জানানো হয়।