সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০১৮ ১৬ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

দিনাজপুর পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারিদের পূর্ণদিবস কর্মবিরতির দ্বিতীয় দিন অতিবাহিত

মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥ রাষ্টীয় কোষাগার হতে পেনশনসহ বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা প্রদানের দাবীতে দিনাজপুর পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারিরা তিন দিনের পূর্ণদিবস কর্মবিরতির দ্বিতীয় দিন অতিবাহিত করেছে।
এদিকে পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারিদের কর্মবিরতির ফলে জরুরী সেবা নিতে আসা পৌর নাগরিকরা বিড়ম্বনায় পড়েন। শত শত মানুষ পৌরসভায় সেবা নিতে এসে হতাশ হয়ে বাড়ী ফিরে গেছেন।
সোমবার (২৯ জানুয়ারী) সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত দেশব্যাপী কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে দিনাজপুর পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কর্মবিরতির দ্বিতীয় দিনে পৌরভবনের সামনে সমাবেশ করেছে। কর্মসূচী পালন করে।
কর্মবিরতির দ্বিতীয় দিনে বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন (ইঅচঝ) দিনাজপুর পৌরসভা শাখার সভাপতি মো. মজিবর রহমান বাচ্চু’র সভাপতিত্বে কর্মবিরতি কর্মসূচী চলাকালে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন রংপুর বিভাগীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক দিনাজপুর পৌরসভার উপ-সহকারী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) মো. হাবিবুর রহমান, দিনাজপুর পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রফিকুল ইসলাম, সংগঠনের জেলা শাখার সভাপতি ও দিনাজপুর পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মো. রইচ উদ্দিন মিয়া, সাধারণ সম্পাদক সহকারী প্রকৌশলী মো. লাইছুর রহমান চৌধুরী প্রমূখ।
কর্মসূচীতে পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী (পানি) মীর তোফাজ্জল হোসেন, জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শামসুল রানা, দপ্তর সম্পাদক মো. আব্দুল লতিফ, প্রবীন সংগঠক মো. আমজাদ আলী, এসোসিয়েশন নেতা মো. ময়েজ উদ্দিন, আব্দুর রাজ্জাক-১, মোহাম্মদ আলী, মো. শরিফ, কামরান চিশতি, আব্দুস সামাদ আজাদ, লিয়াকত আলী, আব্দুর রাজ্জাক-৩, মিজানুর রহমান, নার্গিস, সকল স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী অংশগ্রহণ করেন।
এই আন্দোলনের সাথে যুক্ত পৌরসভার কয়েকজন মাষ্টার রোল কর্মচারী জানান, বিগত ২০-২৫ বছর ধরে মাষ্টার রোল কর্মচারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। সামান্য বেতনে চাকরী করে তারা পরিবার-পরিজন নিয়ে দারুন আর্থিক সংকটের মধ্যে দিনাতিপাত করছেন। এসব মাষ্টার রোল কর্মচারীরা তাদের চাকরী আত্মীকরণের দাবী জানান।
উল্লেখ্য, সারা দেশের ৩২৭টি পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা একযোগে ২৮-৩০ জানুয়ারী তিন দিন পূর্ণদিবস কর্মবিরতি পালন করছে।
বক্তারা স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতাধীন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান-এলজিইডি, ডিপিএইচই, ওয়াসা, জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদ, সমবায় অধিদপ্তরসহ স্থানীয় সরকারের আওতাধীন অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারিদের ন্যায় পৌরসভা কর্মকর্তা-কর্মচারিদের সরকারী তহবিল হতে পেনশনসহ বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা প্রদানের প্রদানের দাবী জানান।