সোমবার ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ ৩রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

নওয়াজ শরীফ ও মেয়ে মরিয়ম গ্রেফতার

বিমানবন্দর থেকেই গ্রেফতার করা হয়েছে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ ও তার মেয়ে মরিয়ম নওয়াজকে। স্থানীয় সময় রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে তাদের বহনকারী বিমানটি আবুধাবি থেকে লাহোরের আল্লামা ইকবাল ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে অবতরণ করে। সেখান থেকেই তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। গত শুক্রবার এভেনফিল্ডের দুর্নীতি সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে নওয়াজ ও তার মরিয়মকে দোষী সাব্যস্ত করেন আদালত। নওয়াজকে ১০ বছর এবং মরিয়মকে ৭ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদের জন্য বাবা নওয়াজ শরীফের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হলেও তাকে বাঁচাতে এটিকে ‘ষড়যন্ত্র’ বলে অবহিত করায় দোষী সাব্যস্ত করা হয় মেয়ে মরিয়মকেও।

আদালতের দণ্ডাদেশ থাকা সত্বেও নওয়াজ ও মরিয়ম ঘোষণা দেন যে, তারা দেশে ফিরবেন এবং আদালতের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করবেন।

কিন্তু দেশে নামার আগেই ন্যাশনাল অ্যাকাউন্ট্যাবিলিটি ব্যুরো (এনএবি) এবং পাঞ্জাব প্রদেশ সরকার বাবা-মেয়েকে কারাগারে নেয়ার সকল ব্যবস্থা করে রাখে। এজন্য হেলিকপ্টারও প্রস্তুত করে রাখা হয়।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম জানাচ্ছে, নওয়াজ ও তার মেয়েকে নিয়ে বিমানটি অবতরণ করার সাথে পুরা বিমানবন্দর আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা নিয়ন্ত্রণে নেয় এবং সেখানে অবস্থানরত অন্য যাত্রীদের সরিয়ে দেয়।

স্থানীয় সময় বিকাল ৫টায় আবুধাবি থেকে একটি বিমানে করে তারা রওনা দেন। রাত ৮.৪৫টার দিকে পাকিস্তানে নামার পরপরই তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

নিরাপত্তা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, ফেডারেল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সির (এফআইএ) তিনজন সদস্য তাদের দুইজনেরই পাসপোর্ট জব্দ করেছে।

এর আগে তাদেরকে বহন করা ইত্তিহাদ এয়ারওয়েজের ফ্লাইটটি ৩ ঘণ্টা বিলম্ব করলে বিমানবন্দরে নেমেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন নওয়াজ শরীফ। এ ঘটনায় ফোনে বিস্ময় প্রকাশ করে সংবাদকর্মীদের তিনি বলেন, ‘যে ফ্লাইট কখনো দেরি করে না, সেটি কেন আজকে দেরি করল। বুঝে নেন, কেন কাদের নির্দেশে বিমান বিলম্ব করল।’

তিনি বলেন, ‘আমরা তো জানিই যে, আমাকে ১০ বছর কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে এবং আমার মেয়েকে ৭ বছর কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। এরপরেও আমরা দেশে ফিরেছি, দেশের গণতন্ত্রের প্রয়োজনে, আমাদের পরিবর্তন দরকার। তারা জানে, মানুষ জাগছে, গণমাধ্যম জাগছে; এতেই তারা ভীত।’

তাদের গ্রেফতার করা হচ্ছে এটা নিশ্চিত হওয়ার পর নওয়াজ শরীফ এর বিরুদ্ধে ভূমিকা রাখতে সংবাদকর্মীদের অনুরোধ করেন। সেইসাথে তারা যাতে কারও ভয়ে পিছপা না হন সে আহ্বান জানান।

এদিকে নওয়াজ ও তার মেয়েকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে লাহোরের বিভিন্ন এলাকা থেকে জড়ো হওয়া বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী বিক্ষোভ প্রদর্শন করে বিমানবন্দরের সামনে। একইভাবে ভাই ও ভাতিজিকে বিমানবন্দরে স্বাগত জানাতে গাড়িবহর নিয়ে উপস্থিত ছিলেন পিএমএল-এনের প্রেসিডেন্ট শাহবাজ শরীফ।