বুধবার ৩ জুন ২০২০ ২০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নবাবগঞ্জে মাদক পাচারের নিরাপদ রুটে পরিণত হয়েছে

ঈদ ও পূজাকে সামনে রেখে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন সড়ক মাদক পাচারকারীদের নিরপদ রুটে পরিণত হয়েছে। মাদক পাচারকারীরা ওই সব রুটে অবাধে বিভিন্ন কৌশলে নানা প্রকার যান বাহনে ওই সব মাদক অবাধে রাজধানী সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পাচার করছে।
জানা যায়, পাচার কারীরা হিলি ও বিরামপুর সিমান্তের বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে মাদক নিয়ে পায়ে হেটে, মোটর সাইকেলে, প্রাইভেট কারে ও মাইক্রোবাসে করে নানা কৌশলে তা পাচার করছে। এছাড়াও পাচারকারীরা মাদক পাচার করে নিয়ে এসে উপজেলা এলাকার কিছু কিছু গ্রামে মজুদ করে তা সুযোগ বুঝে অন্যত্র পাচার করে বলে সূত্র মতে জানা গেছে। মাদক পচারের কারনে এলাকায় সব সময়ই নানা প্রকার যানবাহন সহ অচেনা মানুষের ভীড় লক্ষ্য করা গেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন জানালেন মাদক পাচারকারী ও প্রস্ততকারী রা এক প্রকারা প্রকাশ্যে ওইসব ব্যবসা অবাধে করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে তাদের মধ্যে কেউ কেউ মাদক পাচারের সময় অন্যত্র গিয়ে প্রশাসনের হাতে ধরা পড়েছে এবং এখন জেল হাজতে রয়েছে।
সূত্র মতে উপজেলা এলাকা এখন মাদক পাচারকারীদের অভয়ারণ্য হিসাবে পরিণত হয়েছে।এদের সহযোগীতা কারী হিসাবে কাজ করে যাচ্ছে স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালীরা। তারা শুধু সহযোগিতায় নয় নিজেরাও এর সাথে জড়িত বলে জানা গেছে। বলা যেতে পারে মাদক পাচারকারীরা এক প্রকার বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। উপজেলার উপর দিয়ে দিবা-রাত্রী যে হারে মাদক পাচার হয় তার কিয়দাংশ প্রশাসনের হাতে ধরা পড়ে। এলাকালার সচেতন মহল বলেন মাদক পাচারকারীদের সনাক্ত করন খুবই সহজ।
তাদের ভাষায় ওই শ্রেণীর লোকদের সাথেই প্রশাসনের কোন কোন অংশের বেশ সখ্যতা লক্ষ্য করা যায়। প্রশাসন ইচ্ছা করলে মাদক পাচার নিয়ন্ত্রণ খুব যে কঠিন কাজ তা নয়। তারা আরও বলেন মাদক পাচার প্রতিরোধে শুধু প্রশাসনের উপর ভরসা না করে জনমত সৃষ্টি করা প্রয়োজন।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email