বৃহস্পতিবার ২ এপ্রিল ২০২০ ১৯শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

নাগরিকত্ব আইন ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় : শেখ হাসিনা

নাগরিকত্ব আইন সংশোধন ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় হলেও এর কোনো প্রয়োজন ছিল না বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সম্প্রতি আমিরাত সফর করে আসা শেখ হাসিনা গালফ নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ মন্তব্য করেন।

সম্প্রতি সংযুক্ত আরব আমিরাত সফরে যান শেখ হাসিনা। এ সময় দেশটির গালফ নিউজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এক প্রশ্নে এ কথা বলেন তিনি। মধ্যপ্রাচ্যের সংবাদপত্রটির অনলাইন সংস্করণে শনিবার সাক্ষাৎকারটি প্রকাশিত হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, ভারতে পাড়ি জমানো কেউ বাংলাদেশে এসেছে, এমনটা ঘটেনি। তবে অনেকে ওখানে সমস্যায় আছেন। এরপরও বলব, এটা তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এনআরসি এবং সিএএ ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়, বাংলাদেশ এটা সব সময়ই মনে করে। ভারত সরকারও একই কথা বলছে। তারা বলছে, এটা তাদের বিষয়। ব্যক্তিগতভাবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও গত বছরের অক্টোবরে নয়াদিল্লি সফরের সময় আমাকে এ বিষয়ে আশ্বস্ত করেছেন।

সরকার প্রধান বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যে কোনো বৃহত্তর ক্ষেত্র বিবেচনায় সর্বোচ্চ সুসম্পর্ক বিরাজ করছে।

ভারতের পার্লামেন্টে গত বছরের ১১ ডিসেম্বর নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন পাস হয়। পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাওয়া হিন্দু, খ্রিস্টান, শিখ, বৌদ্ধ, পারসি ও জৈনদের নাগরিকত্ব নিশ্চিতে এ আইন সংশোধন করে দেশটি। আইনটি পাস হওয়ার দিন থেকেই ভারতজুড়ে চলছে তুমুল আন্দোলন। এতে হতাহতের ঘটনাও ঘটেছে। বিতর্কিত এ আইন প্রত্যাহার চেয়েছে একাধিক রাজনৈতিক দল এবং বহু সামাজিক সংগঠন, নাগরিক সমাজ, বুদ্ধিজীবী সমাজ, বিনোদন জগত ও নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email