শনিবার ৩১ অক্টোবর ২০২০ ১৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন বাদল রায়

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নির্বাচন ঘিরে গত দুদিন যাবত বেশ উত্তাপ ছড়াচ্ছিল। কারণ এবার আসন্ন নির্বাচনে সভাপতি পদে কাজী সালাউদ্দিনের বিপক্ষে লড়াই করবেন সাবেক ফুটবলার সফিকুল ইসলাম মানিক ও বাদল রায়। কিন্তু এমন উত্তাপে পানি ঢেলে দিয়েছেন বাদল রায়।

গতকাল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন নিজের জমা দেয়া ফরম তুলে নেন সাবেক এ তারকা ফুটবলার। এদিন বিকাল ৬ টায় বাফুফে ভবনে এসে বাদল রায়ের মনোনয়ন প্রত্যাহার পত্র জমা দিয়েছেন তার স্ত্রী মাধুরী রায়। জমা দেয়ার শেষ সময় ছিল বিকাল ৫টা পর্যন্ত। সময় শেষ হওয়ার পর মনোনয়ন প্রত্যাহারের পত্র জমা দেয়ায় নির্বাচনের বিধিমালা অনুযায়ী আবেদন গ্রহণযোগ্য হওয়ার কথা না থাকলেও নির্বাচন কমিশন বিষয়টি আমলে নিয়ে গ্রহণ করবে বলে জানা যায়। আজ বৈঠকে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের আবেদন গ্রহণ করবে নির্বাচন কমিশন।

গত ১২ বছর বাফুফের সর্বোচ্চ অভিভাবকের আসনে থাকা কাজী সালাউদ্দিনের আমল নিয়ে সন্দিহান দেশের ফুটবল সমর্থকরা। দেশের ফুটবলের অগ্রগতি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তাই আসন্ন নির্বাচনে কাজী সালাউদ্দিনকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সভাপতি হতে দেয়া যাবে না এমনটাই বলেছিলেন বাদল রায়।

কথা অনুযায়ী বাফুফে নির্বাচনে সভাপতি পদে মনোনয়নপত্র উত্তোলন করে জমাও দিয়েছিলেন তিনি। বলেছিলেন, শেষ পর্যন্ত লড়াই করবেন। কিন্তু কেন হঠাৎ করে তিনি সরে দাঁড়ালেন? এমনকী গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে বাদল রায়কে মুঠোফোনে চাপ দিয়ে যাচ্ছিল একটি মহল। তবে মনোনয়ন প্রত্যাহার পত্র জমা দেয়ার পর তার স্ত্রী মাধুরী রায় জানিয়েছেন ভিন্ন কথা। তার সহ-ধর্মিণী বলেন, বাদল রায় আগে থেকেই অসুস্থ। এখন শারীরিক অবস্থা খারাপ। এ অবস্থায় সে থাকতে চাচ্ছে না। প্রচুর চাপ হয়ে যাবে। ক্যাম্পিং থেকে শুরু করে এই প্রক্রিয়ায় শারীরিক ধকল যাবে। তাই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাদল।

এছাড়া গতকাল সদস্যপদ থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন দুই প্রার্থী সাইদুর রহমান ও জাকির হোসেন। স্বশরীরে এসে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে গেছেন সাইদুর রহমান আর প্রতিনিধি পাঠিয়ে সরে দাঁড়িয়েছেন জাকির হোসেন।

এর ফলে ২১ পদের বিপরীতে এখন সভাপতি পদে লড়বেন ২ জন, সিনিয়র সহসভাপতি পদে ২, সহসভাপতি পদে ৮ আর সদস্য পদে ৩৪ জন প্রার্থীর নির্বাচনে লড়বেন। সব কিছু ঠিক থাকলে আজ প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ ও ব্যালট নাম্বার প্রদান করবে নির্বাচন কমিশন।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email