রবিবার ৯ অগাস্ট ২০২০ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল ধর্মের মানুষের প্রতি অত্যন্ত সহানুভূতিশীল-এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল

ফজিবর রহমান বাবু ॥ দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল ধর্মের মানুষের প্রতি অত্যন্ত সহানুভূতিশীল। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যেভাবে ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে এ দেশের মুসলমানদের আশা আকাঙ্খার প্রতিফলন ঘটিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধু সব ধর্মের মানুষকে সমান চোখে দেখতেন। তারই ধারাবাহিকতায় তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন মসজিদ, মাদরাসা, এতিমখানা, মন্দির, কবরস্থান, ঈদগাহ ও শ্মশানের উন্নয়নে কাজ করছেন। তিনি এসব ধর্মীয় স্থাপনা যাতে আরো উন্নত হয় সে জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছেন। এ জন্য তিনি আর্থিক অনুদানও প্রদান করেছেন। এখন আমাদের উচিৎ হবে এই অনুদানের অর্থটি যথাযথভাবে ব্যবহার করে ধর্মীয় স্থাপনাগুলো উন্নত করার মধ্য দিয়ে নিজের আত্মার খোরাক জোগানো। সেই সাথে বর্তমান সরকারের এমন কর্মকান্ড যাতে দিনে দিনে বৃদ্ধি পেতে পারে, সে জন্য সকলকে সহযোগিতা করতে হবে। তাহলেই আমরা তথা দেশের মানুষ আওয়ামী লীগের কাছ থেকে কিছু পাবো। মূলত আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলেই মানুষ কিছু না কিছু পায়। আর অন্যরা লুটেপুটে নিজের আখের গোছায়। সে জন্য আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে আমাদের ঐকান্তিকভাবে কাজ করতে হবে। তিনি সকল ধর্মীয় নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, বর্তমানে বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসে প্রাদুর্ভাব চলছে। এ অবস্থায় একজন ধর্মীয় নেতা হিসেবে প্রত্যেক ইমামদের মসজিদে, প্রত্যেক পুরোহিতদের মন্দিরে বিশেষ ভূমিকা পালন করতে হবে। মানুষকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতন করতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে সবাইকে আরো বেশি সজাগ ও সচেতন করতে হবে।

১৫ জুলাই ২০২০ বুধবার বীরগঞ্জ সরকারি কলেজ হলরুমে উপজেলা প্রশাসন এর আয়োজনে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে প্রদত্ত মসজিদ, মাদ্রাসা, এতিমখানা, মন্দির, কবরস্থান ও শ্মশান এর অনুকূলে অনুদানের অর্থের চেক প্রদান ও মহামারী করোনা ভাইরাস সংক্রমন রোধে সচেতনা সৃষ্টির লক্ষ্যে ধর্মীয় নেতাদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ডালিম সরকার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মুঠোফোনে বক্তব্য রাখেন ধর্ম বিষয়ক সচিব মো. নুরুল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন বীরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল মতিন প্রধান, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কমান্ডার কালীপদ রায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. শামিম ফিরোজ আলম, উপজেলা ইমাম সমিতির সভাপতি মো. মতিউর রহমান প্রমূখ।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email