রবিবার ৭ জুন ২০২০ ২৪শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রবল ঝড়ের পর ব্রিটেনে ফের বন্যার আশংকা

FLOOD-ব্রিটেনে টেমস নদীর তীরবর্তী বাসিন্দারা প্রবল ঝড়ের পর রোববার আরো বন্যার আশংকা করছে এবং একইসঙ্গে তা মোকাবেলারও প্রস্ত্ততি নিচ্ছে। এদিকে শুক্রবার আয়ারল্যান্ড, ব্রিটেন ও ইংলিশ চ্যানেলে প্রবল ঝড়ের কারণে অন্তত তিনজনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া ঝড়ে বৈদ্যুতিক খুঁটি উপড়ে যাওয়ায় বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় রয়েছে অসংখ্য লোক। উপড়ে গেছে গাছ, উড়ে গেছে ভবনের ছাদ। ঝড়ের কারণে নদীর বড় বড় ঢেউ তীরে এসে আছড়ে পড়ছে। রাস্তায় সৃষ্টি হচ্ছে বড় বড় গর্ত।

প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরণ টেমস নদী তীরবর্তী চার্টসি গ্রাম সফরে গিয়ে শনিবার সতর্ক করে বলেন, দুর্দশা এখনও কাটেনি। তিনি বন্যাক্রান্ত লোকজনকে সামরিক বাহিনী কি ধরনের সহযোগিতা করছে তা পরিদর্শন করতে পশ্চিম লন্ডনের ওই এলাকায় যান। তিনি বলেন, আগামী ২৪ ঘণ্টায় আমরা কি করছি তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ নদীর পানি আবারো বেড়ে যাচ্ছে। সুতরাং প্রতিটি বালির ব্যাগ সরবরাহ, প্রতিটি পরিবারকে সহায়তাসহ বন্যা প্রতিরোধে সবধরনের পদক্ষেপ জরুরি। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, তিন হাজারেরও বেশি সেনা সদস্য বন্যার্তদের জন্য ত্রাণ সরবরাহ কাজে অংশ নিয়েছে। তবে সমালোচকদের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না সরকার। সমালোচকেরা বলছেন, সংকট মোকাবেলায় সরকার ধীর গতিতে কাজ করছে। রোববার পত্রিকায় প্রকাশিত এক সাক্ষাতকারে বিরোধী শ্রমিক দলের নেতা এড মিলিব্যান্ড এ পরিস্থিতির জন্য জলবায়ূ পরিবর্তনকে দায়ী করেন। তিনি বিশ্ব উষ্ণতাকে ‘জাতীয় নিরাপত্তা ইস্যু’ হিসেবে বিবেচনা করতে সরকারি মন্ত্রীদের প্রতি আহবান জানান। এদিকে প্রধানমন্ত্রী বন্যা মোকাবেলাসহ বন্যার্তদের জন্য সহযোগিতার বিষয়ে অর্থ কোন সমস্যা নয় উলে­খ করেছেন। কিন্তু ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের গভর্ণর মার্ক কারনি সতর্ক করে বলেন, বিরূপ আবহাওয়া মোকাবেলা করতে গিয়ে দেশটির ভঙ্গুর অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার প্রক্রিয়া হোঁচট খেতে পারে।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email