মঙ্গলবার ২৪ এপ্রিল ২০১৮ ১১ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

প্রস্তুতি ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে হার যুবাদের

বিশ্বকাপ শুরু হতে এখনো বেশ কয়েকদিন বাকি। তারও আগে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব–১৯ দল নিউজিল্যান্ডে গিয়েছিল সেখানকার কন্ডিশন আর নিজেদের প্রস্তুতিটাকে ঝালাই করে নিতে। কিন্তু সেটা কোন কাজে আসেনি। কারণ এখন পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডের মাটিতে হেরেই চলেছে অনূর্ধ্ব–১৯ বাংলাদেশ দল। ওটাগো ‘এ’ দলের কাছে আন অফিসিয়াল দুই প্রস্তুতি ম্যাচে হারার পর বাংলাদেশ এবার বিশ্বকাপের অফিসিয়াল প্রস্তুতি ম্যাচে হেরেছে আফগানিস্তানের কাছে। এই আফগানিস্তানের কাছে নিজেদের মাটিতে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে হেরেছিল বাংলাদেশ। আর সে ধারা অব্যাহত থাকল নিউজিল্যান্ডে গিয়েও। গতকাল সোমবার ক্রাইস্টচার্চে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব–১৯ দলকে ৫৬ রানে হারিয়েছে আফগানিস্তান অনূর্ধ্ব–১৯ দল। ক্রাইস্ট কলেজ মাঠে আফগানদের ২০৬ রানে আটকে রেখে বাংলাদেশ থমকে যায় ১৫০ রানেই। বড় ব্যবধানে ম্যাচ হারলেও ব্যাটিং–বোলিং দুই ইনিংসেই একসময় নিয়ন্ত্রণ ছিল বাংলাদেশের।

টস জিতে আফগানিস্তানকে ব্যাট করার আমন্ত্রন জানায় টাইগার দলপতি। শুরুটা মন্দ হয়নি সাইফদের। ১৪ রানে তুলে নিয়েছিল তারা আফগানদের ২ উইকেট। তৃতীয় উইকেটে ৫৯ রানের জুটি গড়েন ইব্রাহিম জাদরান ও বাহির শাহ। এই জুটি ভাঙার পর আবার নামে ধস। ৩২ রানে আউট হন ইব্রাহিম। আর ৪৪ রান করে ফিরেন বাহির। এরপর দ্রশুত আরো তিনটি উইকেট হারিয়ে ফেললে আফগানদের সংগ্রহ দাড়ায় এক সময় ৭ উইকেটে ১১২। সেখান থেকে দলকে টেনে তোলেন সাতে নামা আজমতউল্লাহ কামারজাই। ৫টি করে চার ও ছক্কায় ৮২ বলে আজমতউল্লাহ করেন ৮১ রান। আর সে সুবাধে আফগানরা তাদের স্কোর নিয়ে যায় দুইশর উপরে। বাংলাদেশের পক্ষে হাসান মাহমুদ ৪ উইকেট নেন ৪৬ রান খরচায়। রবিউল হক ৩টি উইকেট নেন ৫৬ রানে। ৩৬ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন টিপু সুলতান।

২০৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ওপেনার নাঈম শেখকে হারায় বাংলাদেশ। তারপরও আরেক ওপেনার পিনাক ঘোষ ও অধিনায়ক সাইফ হাসান মিলে দ্বিতীয় উইকেটে বেশ স্বাচ্ছন্দের সাথে এগিয়ে নয়ে যাচ্ছিলেন দলকে। এ দুজন গড়েন গড়েন ৭৭ রানের জুটি। এ দুজন যতক্ষণ ব্যাট করছিলেন তখন মনে হচ্ছিল খুব সহজেই জিতে যাবে বাংলাদেশ। কিন্তু এ দুজনের পর দাঁড়াতে পারেননি আর কোন ব্যাটসম্যান । ৫৬ বলে ৮টি চারের সাহায্যে ৫৪ রান করে আউট হন পিনাক ঘোষ। আর অধিনায়ক সাইফ হাসান ফিরেন ৪৩ রান করে। এ রান করতে তিনি খেলেন ৭৪ বল। এরপর হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে বাংলাদেশের ইনিংস। ৪৪ রানের মধ্যে শেষ ৮টি উইকেট হারিয়ে ৪১.৪ ওভারেই সাইফ হাসানের দল গুটিয়ে যায় ১৫০ রানে। ৫৮ রানের মধ্যে বাংলাদেশ হারায় শেষ ৯ উইকেট। পরের ৮ ব্যাটসম্যানের একজনও ছুঁতে পারেননি দুই অঙ্ক। দেশের মাটির সিরিজে বাংলাদেশের যম হয়ে ওঠা অফ স্পিনার মুজিব জাদরান এবার নিয়েছেন ১ উইকেট। কাজ সেরেছেন বাকি সব বোলার মিলেমিশে। ৩টি করে উইকেট নিয়ে টাইগারদের আসল সর্বনাশটা করেন আফগানিস্তানের নাভিন উল হক আর কায়েস আহমেদ। বাংলাদেশ দ্বিতীয় অফিসিয়াল প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে পাকিস্তানের বিপক্ষে আগামীকাল বুধবার। এর আগে ঘরের মাঠেও আফগানিস্তানের কাছে সিরিজ হেরেছিল বাংলাদেশ যুব দল। বাংলাদেশ ক্রিকেটের পাইপলাইন যে দুর্বল হয়ে গেছে, প্রস্তুতি ম্যাচের এই হার আরও একবার সেটা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিলো। আগামী ১৩ জানুয়ারি অনূর্ধ্ব–১৯ বিশ্বকাপের মূল আসরে লিংকনের বার্ট সাটক্লিফ ওভালে নামিবিয়ার মোকাবেলা করবে বাংলাদেশের যুবারা। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩.৩০ মিনিটে। বিশ্বকাপের অন্য প্রস্তুতি ম্যাচগুলোয় জিম্বাবুয়েকে ৫২ রানে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। পাপুয়া নিউ গিনিকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও নামিবিয়কে ১৯০ রানে হারিয়েছে পাকিস্তান।